মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২০ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ৫ আশ্বিন ১৪২৪, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

বিধ্বস্ত জঙ্গীবিমান ও পাইলটকে উদ্ধার অভিযান পরিত্যক্ত হতে যাচ্ছে

প্রকাশিত : ৭ জুলাই ২০১৫
  • ৭ দিনেও কোন খোঁজ নেই

স্টাফ রিপোর্টার, চট্টগ্রাম অফিস ॥ অবশেষে বঙ্গোপসাগরে বিধ্বস্ত বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর যুদ্ধ বিমান ও এর পাইলটকে উদ্ধার তৎপরতা অঘোষিতভাবে পরিত্যক্ত হতে যাচ্ছে। কেননা সোমবার পর্যন্ত ৭ দিনেও উদ্ধারকারী সংস্থাসমূহ এর কোন কূলকিনারা করতে পারেনি। এফ-৭ নামের এই যুদ্ধ বিমানটি গত ২৯ জুন চট্টগ্রামে বিমানবাহিনী জহুরুল হক ঘাঁটি থেকে উড্ডয়নের ৪০ মিনিটের মধ্যে এটি বহির্নোঙ্গরের ব্র্যাভো পয়েন্টে বিধ্বস্ত হয়। বিধ্বস্ত হওয়ার পর থেকে এটির সন্ধান যেমন মিলছে না, তেমনি পাইলট ফ্লাইট লে. চৌধুরী তাহমিদ কাদের রুম্মানও নিখোঁজ রয়েছেন। বিধ্বস্ত হওয়ার পর থেকে নৌবাহিনী, কোস্টগার্ড, চট্টগ্রাম বন্দরে ৬ উদ্ধারকারী জাহাজ তল্লাশি অভিযানে নামে। এর পাশাপাশি বিমানবাহিনীর হেলিকপ্টার সীতাকু- উপকূল পর্যন্ত দফায় দফায় চক্কর দিয়েও কোন হদিস পায়নি। যুদ্ধ বিমানটি বিধ্বস্ত হওয়ার পর এর ধ্বংসাবশেষে তিনটি খ- ভেসে উঠার পর আর কোন আলামত অদ্যাবধি মিলেনি। নৌবাহিনী ও কোস্টগার্ডের সোনারযুক্ত জাহাজগুলো এখনও সাগরে টহলে রয়েছে। কিন্তু নিখোঁজ পাইলট ও যুদ্ধ বিমানটির কোন খোঁজ পাচ্ছে না। সাগরে যে স্থানে এটি বিধ্বস্ত হয়েছে সেখানে ডুবুরি নামানোর কোন সুযোগ নেই। আর সোনার সিস্টেমেও এটির অবস্থান নির্ণয় হচ্ছে না।

প্রকাশিত : ৭ জুলাই ২০১৫

০৭/০৭/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

প্রথম পাতা



শীর্ষ সংবাদ: