মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১০ আশ্বিন ১৪২৪, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

কিছু নিষেধাজ্ঞাসহ জারি হয়েছে প্রাথমিক শিক্ষক বদলি নীতিমালা

প্রকাশিত : ৭ জুলাই ২০১৫

বিভাষ বাড়ৈ ॥ জেলার সদর উপজেলা ও জেলা সদর পৌরসভায় বদলিতে নিষেধাজ্ঞা দিয়ে সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক বদলির নতুন নীতিমালা জারি করেছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়। মন্ত্রণালয়ের বিদ্যালয়-২ শাখা থেকে জারি করা নীতিমালায় আনা হয়েছে বেশ কিছু পরিবর্তন। অসংখ্য প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষকের পদ শূন্য থাকায় এ পদে বদলির পথ কিছুটা সহজ করা হয়েছে। তবে সিটি করপোরেশনের মধ্যে প্রধান ও সহকারী সকল শিক্ষকের বদলিই বন্ধ রাখা হয়েছে। এখন আর জেলা সদর উপজেলা ও জেলা সদর পৌরসভায় বাইরে থেকে কোন সহকারী শিক্ষক বদলি হয়ে আসতে পারবেন না। তবে এ দুটি এলাকা থেকে নীতিমালার অন্যান্য শর্ত মেনে বাইরে বদলি হতে পারবেন শিক্ষকরা। এছাড়া বদলির জন্য বেঁধে দেয়া হয়েছে টাইমফ্রেম।

জানা গেছে, বেশ কিছুৃদিন ধরেই শিক্ষক বদলি নিয়ে ব্যাপক চাপ সামলাতে হয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়কে। সারাদেশেই বদলির জন্য শিক্ষকরা উঠেপড়ে লাগলেও সবচেয়ে বেশি চাপ লক্ষ্য করা যায় জেলা সহরগুলোতে আসার জন্য। দেশজুড়ে কয়েক মাসের বদলির আবেদন ও তদ্বিরের কারণে রীতিমতো বিব্রতকর অবস্থায় পড়েছিলেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী থেকে শুরু করে সংশ্লিষ্ট সকলেই। মন্ত্রীর দফতরে সারাদেশের নেতা-কর্মীদের তদ্বির ছাড়াও প্রভাবশালী ব্যক্তিদের আবেদন পড়তে থাকে রীতিমতো পাল্লা দিয়ে। আগের নীতিমালায় জেলা সদরে বদলির সুযোগ থাকায় তদ্বিরের চাপে পড়েন বিভাগীয় উপ পরিচালক ও জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসাররা। অবস্থা সামাল দিতে এক পর্যায়ে সকল বদলি ঘোষণা দিয়ে বন্ধ রাখে মন্ত্রণালয়। দুই মাসেরও বেশি সময় বিষয়টি নিয়ে পর্যালোচনা থেকে রবিবার বদলির নতুন নীতিমালা প্রকাশ করা হয়। নতুন নীতিমালা সম্পর্কে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব সন্তোষ কুমার অধিকারী জনকণ্ঠকে জানান, আগের নীতিমালার সঙ্গে নতুন নীতির কয়েকটি ক্ষেত্রে ভিন্নতা আছে। পরিবর্তন আনা হয়েছে জেলা সদর উপজেলা ও জেলা সদর পৌরসভায় বদলির নিয়মে।

বিষয়টি ব্যাখ্যা করে তিনি বলেন, এখন আর বাইরে থেকে কোন সহকারী শিক্ষক জেলা সদর উপজেলা ও জেলা সদর পৌরসভায় বদলি হয়ে আসতে পারবেন না। তবে এখান থেকে বদলি হয়ে বাইরে যেতে পারবেন। যেহেতু অনেক বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক নেই তাই প্রয়োজন বিবেচনায় এ দুটি এলাকার প্রধান শিক্ষকরা বদলি হয়ে আসতে পারবেন।

সিটি করপোরেশনে বদলির নিয়ম সম্পর্কে সন্তোষ কুমার অধিকারী বলেন, এখানে বদলি হয়ে আসার ক্ষেত্রে সকলেরই পথ বদ্ধ। তবে বাইরে যেতে পারবেন। কিন্তু মন্ত্রী বা মন্ত্রণালয়ের হাতে যে কোন সময় বদলি সর্বময় ক্ষমতা কি থাকছে? এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, হ্যা এটা আছে। সর্বোপরি প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় জনস্বার্থে যেকোন শিক্ষককে যেকোন সময় বদলি করতে পারবে।

বদলির নতুন আদেশ পর্যালোচনা করে দেখা গেছে, নতুন নির্দেশিকা জারির ফলে এর আগের এ সংক্রান্ত সকল নীতিমালা, প্রজ্ঞাপন ও আদেশ বাতিল হয়ে গেছে।

প্রকাশিত : ৭ জুলাই ২০১৫

০৭/০৭/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: