মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২৩ আগস্ট ২০১৭, ৮ ভাদ্র ১৪২৪, বুধবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
সর্বশেষ

গৃহবধূকে শিকলে বেঁধে নির্যাতনের ঘটনায় শাশুড়ি গ্রেফতার

প্রকাশিত : ৬ জুলাই ২০১৫, ০২:১২ পি. এম.

নিজস্ব সংবাদদাতা, কিশোরগঞ্জ ॥ কিশোরগঞ্জের পল্লীতে এক লক্ষ টাকা যৌতুকের জন্য স্বামী, শ্বাশুড়ি ও ননদের বিরুদ্ধে শিরিন আক্তার (২০) নামে এক গৃহবধূকে শিকল দিয়ে বেঁধে রেখে নির্যাতনের ঘটনায় অবশেষে থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। বিষয়টি প্রথমে সালিশ বৈঠকে ধামাচাপা দেয়ার চেষ্টা করা হচ্ছিল বলে জানা গেছে। মামলার পর রবিবার রাতে পুলিশ শাশুড়ি মঞ্জুয়ারা বেগমকে (৫৫) গ্রেফতার করেছে। এর আগে গৃহবধূর স্বামী রাজমিস্ত্রি আঃ আলিমকে (২৪) গ্রেফতার করে। সোমবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে তাদেরকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এদিকে জেলা হাসপাতালে নির্যাতিত গৃহবধূর প্রয়োজনীয় চিকিৎসা শেষে তাকে বেসরকারী সংস্থা পপির তত্ত্বাবধানে রয়েছে বলে প্রকল্প সমন্বয়কারী সাইফুল কদ্দুস জানিয়েছেন। তিনি জানান, বর্তমানে গৃহবধূর ৭ মাসের পুত্রসন্তান শাওন মাকে ছেড়ে চরম নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছে। শিশুটিকে এখনো তার মায়ের কাছে ফিরিয়ে দেয়া সম্ভব হয়নি।

কিশোরগঞ্জ মডেল থানার এসআই ও তদন্তকারী কর্মকর্তা শাহাদৎ হোসেন জানান, মামলার এজাহারভুক্ত আসামী গৃহবধূর স্বামী ও শাশুড়িকে ইতোমধ্যে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। অন্য আসামী ননদ জাহানারা আক্তারকে (৩২) গ্রেফতারে চেষ্টা অব্যাহত রয়েছে বলে তিনি জানান।

উল্লেখ্য, কিশোরগঞ্জ সদরের মহিনন্দ ভাস্করখিলা গ্রামের মৃত ফালু মিয়ার ছেলে আঃ আলিমের সাথে (২৪) প্রতিবেশি আব্দুল হেলিম মিয়ার কন্যা শিরিন আক্তারের বিয়ে হয়। এরপর যৌতুকের জন্য প্রায়ই স্বামী, শাশুড়ি ও ননদ মিলে তাকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করতো। গত ৩ জুলাই এক লাখ টাকা যৌতুকের দাবিতে শিরিনকে শারিরীক নির্যাতন করে সাদা কাগজে সই নেয়ার চেষ্টা করে। এতে অস্বীকৃতি জানালে তাকে স্বামীসহ অন্যরা শিকল দিয়ে বেঁধে ঘরে আটকে রাখে। পরে কৌশলে রাতের আঁধারে ওই গৃহবধূ পালিয়ে এসে পিত্রালয়ে আশ্রয় নেয়। ঘটনাটি জানাজানি হওয়ার পর শনিবার বিকেলে বেসরকারী সংস্থা পপি ও জাতীয় মহিলা পরিষদের সহযোগিতায় নির্যাতিত নারীকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

প্রকাশিত : ৬ জুলাই ২০১৫, ০২:১২ পি. এম.

০৬/০৭/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: