২০ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

১৬২ টি ছিটমহলে যৌথ জরিপ শুরু


স্টাফ রির্পোটার,নীলফামারী॥ বাংলাদেশ ও ভারতের অভ্যান্তরে থাকা ১৬২টি ছিটমহলে একযোগে যৌথ জনগননা আজ সোমবার সকাল শুরু হয়েছে। চলবে আগামী ১৬ জুলাই পর্যন্ত। বাংলাদেশের অভ্যান্তরে থাকা নীলফামারীর ৪টি, লালমনিরহাটে ৫৯টি, পঞ্চগড়ে ৩৬টি, কুড়িগ্রামে ১২টি সহ ১১১টি ছিটমহলে জনগণনার কাজে অংশ নিয়েছে ভারত থেকে আশা ৭৫ জন জড়িপকারী প্রতিনিধি দল। অপর দিকে ভারতের কুচবিহারের ৪৭টি ও জলপাইগুড়ির ৪ টি সহ ৫১ টি ছিটমহলে জরিপের কাজে অংশ নিয়েছে বাংলাদেশ থেকে যাওয়া ২৫ জন জড়িপকারী প্রতিনিধি দল।

বিষয়টি নিশ্চিত করে নীলফামারী জেলা প্রশাসক জাকীর হোসেন বলেন আজ সোমবার সকাল ৯টা থেকে প্রতিটি ছিটমহলে স্থাপিত ক্যাম্পে জরিপ কাজ শুরু হয়। স্ব-স্ব ছিটমহলবাসী নির্দিষ্ট ক্যাম্পে এসে তালিকা ভুক্তিতে অংশ নিতে শুরু করেছে। জড়িপকাজ চলবে আগামী ১৬ জুলাই পর্যন্ত। প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত জরিপ ক্যাম্প খোলা থাকবে।

নীলফামারীর ডিমলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রেজাউল করিম জানান, ডিমলা উপজেলার চারটি ছিটমহল রয়েছে। ছিটবাসীদের সুবিধার্থে জনগননার জন্য চারটি পয়েন্টে ক্যাম্প স্থাপন করা হয়েছে। এর মধ্যে ২৮ নম্বর ছিটমহলবাসীরা শহীদ স্মৃতি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ক্যাম্পে, ২৯ নম্বর ছিটমহল বাসীদের মিজানুর রহমানের বাড়ীর আঙ্গিনা সংলগ্ন ক্যাম্পে, ৩০ নম্বর ছিটমহল বাসীদের আব্দুল খালেকের বাড়ীর আঙ্গিনা সংলগ্ন ক্যাম্পে,৩১ নম্বর ছিটমহলবাসীর জয়নালে বাড়ীর আঙ্গিনা সংলগ্ন ক্যাম্পে। সুত্র মতে ২০১১ সালে ১৬২টি ছিটমহলের জনগণনা হয়েছিল। সেই নিরিখে বাংলাদেশের ভূখন্ডে থাকা ভারতীয় ১১১ টি ছিটমহলের জনসংখ্যা ৩৭ হাজার ৩৬৯ জন। ভারতীয় ভূখন্ড দিয়ে ঘেরা বাংলাদেশের ৫১ টি ছিটমহলের জনসংখ্যা ১৪ হাজার ২১৫ জন। গত চার বছরে ওই সংখ্যার অনেকটাই পরিবর্তন হয়েছে বলে মনে করছে প্রশাসন । এই সময়ের মধ্যে নতুন করে অনেকের জন্ম হয়েছে অনেকে আবার মারাও গিয়েছেন। সবমিলিয়ে বর্তমান পরিস্থিতি কি রয়েছে তা এই জনগননায় স্পষ্ট হবে। পাশাপাশি ছিটমহলের বাসিন্দারা কোন দেশে থাকতে চান তা নিয়েও তথ্য সংগ্রহের কাজ করবে জনগণনায় নিযুক্ত দল।