২১ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট পূর্বের ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

বাজার মূলধন বেড়েছে সাড়ে ৭ হাজার কোটি টাকা


অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ দেশের উভয় পুঁজিবাজারে গত সপ্তাহে চার কার্যদিবসের তিন কার্যদিবসই সার্বিক সূচক বেড়েছিল। বিনিয়োগকারীদের আগ্রহ বাড়ার কারণে বেশিরভাগ কোম্পানিরও দর বেড়েছে। যার কারণে টাকার অংকেও উভয় বাজারে বেড়েছে লেনদেন। এদিকে সাপ্তাহিক ব্যবধানে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) বাজার মূলধন বেড়েছে ৭ হাজার ৬০৪ কোটি টাকারও বেশি। উল্লেখ্য, গত ১ জুলাই ব্যাংক হলিডে উপলক্ষে দেশের উভয় বাজারে লেনদেন বন্ধ ছিল।

সমাপ্ত সপ্তাহে ‘এ’ ক্যাটাগরির কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ৮৫ দশমিক ১৭ শতাংশ। ‘বি’ ক্যাটাগরির কোম্পানির লেনদেন হয়েছে ২ দশমিক ২১ শতাংশ। ‘এন’ ক্যাটাগরির কোম্পানির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ১১ দশমিক ৭৩ শতাংশ। ‘জেড’ ক্যাটাগরির লেনদেন হয়েছে দশমিক ৮৯ শতাংশ।

এদিকে ডিএসই সার্বিক সূচক বা ডিএসইএক্স বেড়েছে ২ দশমিক ৬৩ শতাংশ বা ১১৭ দশমিক ৩০ পয়েন্ট। সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএস৩০ সূচক বেড়েছে ৩ দশমিক ৩৪ শতাংশ বা ৫৭ দশমিক ২৫ পয়েন্ট। অপরদিকে শরীয়াহ বা ডিএসইএস সূচক বেড়েছে ২ দশমিক ৬৩ শতাংশ বা ২৩ দশমিক ৭৩ পয়েন্টে।

সপ্তাহজুড়ে ডিএসইতে লেনদেন করা মোট ৩২৬টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ২২৯টির, কমেছে ৭২টির, অপরিবর্তিত রয়েছে ২৪টি এবং লেনদেন হয়নি ১টি কোম্পানির, যা টাকার অংকে লেনদেন হয়েছে ১ হাজার ৮৮৫ কোটি ৪১ লাখ ৯৩ হাজার ৬৫৩ টাকা।

আগের সপ্তাহে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছিল ১ হাজার ৮৪২ কোটি ৭৬ লাখ ৬৭ হাজার ৬২৮ টাকা। সে হিসেবে আলোচিত সপ্তাহে ডিএসইতে লেনদেন বেড়েছে ৪২ কোটি ৬৫ লাখ ২৬ হাজার ২৫ টাকা বা ২.৩১ শতাংশ।

সপ্তাহশেষে ডিএসইর বাজার মূলধন দাঁড়িয়েছে ৩ লাখ ১৬ হাজার ৩৪৫ কোটি ২৭ লাখ ৫৪ হাজার ২২৮ টাকা। যা আগের সপ্তাহে ছিল ৩ লাখ ১৬ হাজার ৩৪৫ কোটি ২৭ লাখ ৫৪ হাজার ২২৮ টাকা। সে হিসেবে আলোচিত সপ্তাহে ডিএসইর বাজার মূলধন বেড়েছে ২.৪০ শতাংশ বা ৭ হাজার ৬০৪ কোটি ১৮ লাখ ৩১ হাজার ১০৮ টাকা।

ডিএসইর সাপ্তাহিক লেনদেনের সেরা কোম্পানিগুলো হলো : অলিম্পিক এক্সেসরিজ, বেক্সিমকো ফার্মা, লাফার্জ সুরমা, স্কয়ার ফার্মা, গ্রামীণ ফোন, বেক্সিমকো, এএফসি এ্যাগ্রো, ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ, ইউনাইটেড পাওয়ার ও খুলনা পাওয়ার কোম্পানি লিমিটেড।

দরবৃদ্ধির সেরা কোম্পানিগুলো হলো : অলিম্পিক এক্সেসরিজ, স্ট্যান্ডার্ড সিরামিক, ইউনাইটেড এয়ারওয়েজ, খান ব্রাদার্স, এ্যাপোলো ইস্পাত, ন্যাশনাল টিউবস, হাক্কানী পাল্প, ন্যাশনাল ফিড মিলস লিমিটেড ও মালেক স্পিনিং।

দর হারানোর সেরা কোম্পানিগুলো : বিআইএফসি, প্রথম বাংলাদেশ ফিক্সড ইনকাম ফান্ড, এশিয়া প্যাসিফিক জেনারেল ইন্সু্যুরেন্স, মুন্নু সিরামিক, প্রগেসিভ লাইফ, সালভো কেমিক্যাল, লিগ্যাসি ফুটওয়ার, পিপলস ইন্স্যুরেন্স, আনোয়ার গ্যালভানাইজিং ও আলহাজ টেক্সটাইল।

এদিকে সপ্তাহশেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সাধারণ মূল্যসূচক ২.৭১ শতাংশ বেড়ে অবস্থান করছে ৮ হাজার ৫৭৬ পয়েন্টে। সপ্তাহজুড়ে লেনদেন করা মোট ২৭৬টি কোম্পানির মধ্যে দর বেড়েছে ২০৫টির, কমেছে ৫৪টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ১৭টি কোম্পানির শেয়ার দর, যা টাকার অংকে লেনদেন হয়েছে ১৮১ কোটি ৬৪ লাখ ৩৫ হাজার ৭৯৮ টাকা।