মেঘলা, তাপমাত্রা ৩১.১ °C
 
২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১০ আশ্বিন ১৪২৪, সোমবার, ঢাকা, বাংলাদেশ

বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষাসফরে একদিন

প্রকাশিত : ৫ জুলাই ২০১৫

মেঘের ভেলায় ভেসে কদম গাছগুলোর সাদা-মিশ্র ফুলগুলোর সুবাস ছড়িয়ে পড়ছে ক্যাম্পাসের চারদিকে। মেঘলা আকাশ থেকে সকাল থেকেই পড়ছে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি। এ দিনটিতেই ছিল বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃষি অনুষদের শিক্ষার্থীদের বিশ্ববিদ্যালয় জীবনের প্রথম শিক্ষা সফর। তাই বৃষ্টির মাঝেও এ শিক্ষা সফর নিয়ে আনন্দের কোন কমতি ছিল না সবার মাঝে। সকাল সাড়ে সাতটা। বৃষ্টিকে উপেক্ষা করে বিশ্ববিদ্যালয়ের হেলিপ্যাডে একে একে জড়ো হতে থাকি আমরা সবাই। সবার মুখের মাঝে দীপ্তিময় হাসির আভা, কিছু পাওয়ার স্বস্তির দীর্ঘশ্বাস। প্রতিদিনের প্র্যাকটিক্যাল, ক্লাস ও এ্যাসাইন্টমেন্টের চাপ ছিল না সেদিন। বিশ্ববিদ্যালয়ের মৃত্তিকা বিজ্ঞান বিভাগের আওতায় এ শিক্ষাসফরের আয়োজন। দ্বিতীয় বর্ষের প্রায় ৩১৮ জন শিক্ষার্থী নিয়ে একে একে হেলিপ্যাড থেকে পর পর ৮টি বাস ছাড়ল। গন্তব্য ছিল ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার ভরাডুবার লাল মাটি এলাকায়। বাইরের বৃষ্টির ফাঁকে ফাঁকে বাসের মধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছিল নাচানাচি। সুস্ময়, রিসানের নাচের তালের সঙ্গে সঙ্গে চলতে থাকে বাস। ওদের নাচ দেখে বাসের সিটে বসে থাকতে পারেনি বাকিরা। কিছুক্ষণ পর যোগ দেয় মেয়েরাও। নাচের সঙ্গে চলতে থাকে কৌতুক আর আড্ডা। জানালার কাঁচ দিয়ে ভেসে ওঠে রাস্তার দু’পাশের বাংলার সবুজ-শ্যামল ছবি। মুহূর্তগুলো ক্যামেরাবন্দী করতে ভোলেনি সেলফি প্রেমীরা। অবশেষে এসে পড়ি আমাদের গন্তব্যে। এলাকাটিতে নেমেই আমরা ৩টি গ্রুপে বিভক্ত হয়ে পড়ি। শুরু করি আমাদের শিক্ষা সফরের বাস্তব অভিজ্ঞতা। তিনটি স্থানের মাটি পরীক্ষা-নিরীক্ষা করার পর আমরা জরিপ তৈরি করি। দুপুরের খাওয়া শেষ করে আবার উঠে পড়ি বাসে। বাসে উঠে আবার গানের তালে তালে শুরু হলো নাচ। এ শিক্ষাসফরে তত্ত্বাবধানে আমাদের সঙ্গে ছিলেন মৃত্তিকা বিজ্ঞান বিভাগের প্রধান সহযোগী প্রফেসর ড. মাহমুদ হোসেন সুমন, সহযোগী প্রফেসর ড. মো. আনোয়ারুল আবেদীন ও সহযোগী প্রফেসর ড. মো. মফিজুর রহমান জাহাঙ্গীর। অবশেষে সূর্যের হেলে পড়ার সঙ্গে সঙ্গে আমরাও পাখিদের মতো ফিরে আসি আমাদের ক্যাম্পাসে। সবাই ক্লান্ত-শ্রান্ত পথিকের মতো হারিয়ে যাই, কিন্তু একই সুতোয় বেঁধে রেখে যাই এই সফরের স্মৃতিগুলো।

মো. মুসফিকুর রহমান সিফাত

প্রকাশিত : ৫ জুলাই ২০১৫

০৫/০৭/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ: