১৮ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

সিরিয়ায় আইএসের বিরুদ্ধে বিমান হামলা করতে পারে ব্রিটেন


ব্রিটেনের প্রতিরক্ষামন্ত্রী বুধবার বলেছেন, ইরাকে ইসলামিক স্টেটের (আইএস) বিরুদ্ধে বোমাবর্ষণ অভিযানে অংশগ্রহণ করা ব্রিটেনের জন্য ‘অযৌক্তিক’ কিন্তু সিরিয়ায় তা নয়। এ সঙ্গে তিনি আভাস দিয়েছেন, সিরিয়ায় তথাকথিত আইএসের জিহাদীদের বিরুদ্ধে বিমান অভিযান বিষয়টি বিবেচনা করছে ব্রিটেন। খবর টেলিগ্রাফ অনলাইনের।

প্রতিরক্ষামন্ত্রী মাইকেল ফ্যালনের এ মন্তব্য অত্যন্ত স্বচ্ছ আভাস হিসেবে বিবেচনায় নেয়া হবে যে, ব্রিটিশ সরকার মধ্যপ্রাচ্যে সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে সামরিক পদক্ষেপ শুরু করার বিষয়টি বিবেচনা করছে। তিনি বলেন, আইএসের হুমকি এবং মধ্যপ্রাচ্যে কোন দেশের সীমান্তে তাদের প্রতিরোধের জন্য ব্যর্থতার যে সকল কারণ রয়েছে সেগুলো কিভাবে সর্বোৎকৃষ্টভাবে মোকাবেলা করা যায় সে বিষয়টি ভেবে দেখার প্রয়োজন রয়েছে এমপিদের। মন্ত্রী বিবিসি রেডিও ফোর-এর ‘ওয়ার্ল্ড এট ওয়ান’ অনুষ্ঠানে বলেন, এটি নতুন পার্লামেন্ট এবং আমি মনে করি, আইএসকে কিভাবে সর্বোৎকৃষ্ট উপায়ে আমরা মোকাবেলা করব এ বিষয়ে এবং সীমান্তরেখা মেনে না চলায় তাদের বেপরোয়া তৎপরতার ব্যাপারে পার্লামেন্ট সদস্যরা খুবই সতর্কতার সঙ্গে ভাবতে চাইবেন। তিনি বলেন, আইএস সিরিয়া ও ইরাকের মধ্যে কোন পার্থক্য রাখে না। তারা দুটো দেশেই তাদের অশুভ ‘খিলাফত রাষ্ট্র’ তারা দুটো দেশেই তাদের অশুভ খিলাফত রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করছে। ফ্যালন বলেন, পার্লামেন্টে আইএসের ওপর বোমা হামলা শুরু করার জন্য যে কোন সিদ্ধান্তের ওপর ভোটাভুটি করবেন সদস্যরা। তিনি বলেন, দেশ কোন অত্যাসন্ন হুমকির সম্মুখীন না থাকা অবস্থায় সিরিয়ায় যে কোন সম্ভাব্য সামরিক হস্তক্ষেপের বিষয়টি পার্লামেন্টে উত্থাপন করা যাবে। এবং দেশ ঐ পরিস্থিতির সম্মুখীন হলে সরকার পার্লামেন্টের অনুমোদন ছাড়াই যে কোন পদক্ষেপ গ্রহণের অধিকার রাখে। বিবিসি অন্য এক খবরে জানিয়েছে, কয়েকদিন আগে তিউনিসিয়ায় সন্ত্রাসীদের হামলায় নিহত ৮ ব্রিটিশ পর্যটকের মৃতদেহ বুধবার যুক্তরাজ্য এসে পৌঁছেছে। একটি একটি করে কফিন অপেক্ষামান শবযানে তোলার সময় মৃতদের উদ্দেশে অর্পণ করা হচ্ছিল কেবল শাদা ফুলের স্তবক। রয়েল এয়ারফোর্সের একটি সি সেভেন্টিন বিমান মৃতদেহগুলো নিয়ে অক্সফোর্ড শায়ারে অবতরণ করে।