২৪ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

‘এফপিএবি ভাঙার চেষ্টা চলছে’


অনলাইন রিপোর্টার ॥ বাংলাদেশ পরিবার পরিকল্পনা সমিতি (এফপিএবি) ভাঙার চেষ্টা চলছে বলে অভিযোগ করেছেন সমিতির বর্তমান সভাপতি অধ্যাপিকা খালেদা খানম।

তিনি বলেন, এফপিএবি’র সাফল্যে ঈর্ষান্বিত হয়ে একটি কুচক্রীমহল এই সমিতির বর্তমান কমিটির বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালিয়ে ভেঙে দেওয়ার পাঁয়তারা করছে।

বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে ‘এফপিএবি’র বর্তমান অবস্থা অবহিতকরণ’ শীর্ষক আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন, এফপিএবি’র সাধারণ সম্পাদক নাসির আহমেদ, নির্বাহী পরিচালক মতিউর রহমান প্রমুখ।

খালেদা খানম বলেন, ২০১২ সালে নির্বাচিত হওয়ার পর থেকেই একটি স্বার্থান্বেষী মহলের প্ররোচনায় কমিটিকে ভেঙে দেওয়া হয়েছিল। এরপর দাতাসংস্থা তাদের সমস্ত অর্থছাড় বন্ধ করে দেয়। এরপর আমরা মামলা করলে হাইকোর্ট আমাদের পক্ষে রায় দেওয়ায় এ কমিটি আবার দায়িত্ব ফিরে পায়।

তিনি বলেন, দাতাসংস্থাগুলো আবারও অর্থ বরাদ্দ শুরু করে। সেই কুচক্রী মহল আবারও এই কমিটির বিরুদ্ধে অপচেষ্টায় লিপ্ত।

অর্থসহায়তার বিষয়ে অধ্যাপিকা খালেদা খানম বলেন, এফপিএবি আন্তর্জাতিক দাতাসংস্থা থেকে প্রতি বছর ৪০ কোটি টাকা এবং বাংলাদেশ সরকারের কাছ থেকে ৮০ লাখ টাকা পায়। এই অর্থায়নে এক কোটিরও বেশি সংখ্যক দরিদ্র জনগোষ্ঠীকে নিয়মিত স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করে আসছে। কিন্তু সেই স্বার্থান্বেষী মহলের অপচেষ্টায় দাতাসংস্থার অর্থছাড় বন্ধ হয়ে গেলে এসব দরিদ্র জনগোষ্ঠীর স্বাস্থ্যসেবা বন্ধ হয়ে যাবে এবং এ সমিতির প্রায় দুই হাজার একশ কর্মকর্তা-কর্মচারী চাকরি হারাবে।

স্বার্থান্বেষী মহল কারা সাংবাদিকদের এ প্রশ্নের জবাবে করেছেন সমিতির বর্তমান সভাপতি বলেন, যারা গত নির্বাচনে পরাজিত হয়েছে তারা এবং এর বাইরেও কিছু লোক যারা এই সমিতির ভালো চান না, তারাই এই সমিতির বিপক্ষে অপপ্রচার চালাচ্ছে।