১৯ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

রনির গুলিতে ইস্কাটনের জোড়া খুন


অনলাইন রিপোর্টার ॥ মহিলা আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক পিনু খানের পুত্র বখতিয়ার আলম রনির পিস্তল থেকে ছোড়া গুলিতেই রাজধানীর নিউ ইস্কাটনের জোড়া খুনের ঘটনা ঘটেছে বলে নিশ্চিত করেছে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

উপযুক্ত তথ্য ও পর্যাপ্ত সাক্ষ্য প্রমাণ এবং প্রত্যক্ষদর্শীদের জবানবন্দি অনুযায়ী বিষয়টি প্রমাণিত হয়েছে বলে বুধবার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) যুগ্ম কমিশনার মনিরুল ইসলাম।

মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘রনি চার দফায় ১৪ দিনের রিমান্ডে রয়েছে। রনি যদি স্বেচ্ছায় জবানবন্দি দিতে চায়। সেক্ষেত্রে তাকে বৃহস্পতিবার আদালতে পাঠানো হবে।’

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘ যেহেতু এটা রনির পিস্তল, এটা অন্য কারো কাছে ছিল না। ওই দিন সে ফাঁকা গুলি ছুড়েছে বলে স্বীকার করেছে। তবে আমাদের তদন্তে প্রমাণ হয়েছে, রনির ছোড়া গুলিতেই ইস্কাটনে দুজন মারা গেছেন।

তিনি বলেন, ‘রনি আমাদের কাছে গুলি ছোড়ার বিষয়টি স্বীকার করলেও ১৬৪ ধারায় আদালতে জবানবন্দি দেয়নি। ‘

তিনি আরও বলেন, ‘সকল মামলায় ১৬৪ ধারার প্রয়োজন হয় না। মামলাটি ‘ওয়েল ডিটেকটেড’। আদালতে মামলাটি প্রমাণ করতে কোনো অসুবিধা হবে না। কারণ ব্যালিস্টিক রিপোর্ট এবং প্রত্যক্ষদর্শী জবানবন্দিসহ পর্যাপ্ত সাক্ষ্য প্রমাণ রয়েছে।’

মামলার অভিযোগ থেকে জানা গেছে, ১৩ এপ্রিল রাত পৌনে ২টার দিকে রাজধানীর নিউ ইস্কাটনে একটি কালো রঙের প্রাডো গাড়ি থেকে ছোড়া এলোপাতাড়ি গুলিতে আহত হন অটোরিকশাচালক ইয়াকুব আলী ও রিকশাচালক আবদুল হাকিম। পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তারা।

ওই ঘটনায় নিহত হাকিমের মা মনোয়ারা বেগম অজ্ঞাতপরিচয় কয়েকজনকে আসামি করে ১৫ এপ্রিল রাতে রমনা থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

২৪ মে মামলার তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয় পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগকে (ডিবি)। ৩১ মে এলিফ্যান্ট রোডের বাসা থেকে বখতিয়ার আলম রনিকে আটক করে ডিবি পুলিশ।

ওই মামলায় রনির বিরুদ্ধে মঙ্গলবার দুই দিনের রিমান্ড আদেশ দেন আদালত। ঢাকা মহানগর হাকিম আমিনুল হক এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে ডিবি পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) দীপক কুমার দাস রোববার দুপুরে ঢাকা মহানগর হাকিম আমিনুল হকের আদালতে রনিকে হাজির করে তার বিরুদ্ধে রিমান্ড আবেদন করেন।

ওই দিনই রিমান্ড আবেদনের ওপর প্রাথমিক শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। মামলার প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ (সিডি) পরবর্তী শুনানির জন্য ৩০ জুন দিন ধার্য করেন আদালত।

এর আগে গত ২৪ জুন ঢাকা মহানগর হাকিম মাহবুবুর রহমান রনির বিরুদ্ধে চার দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। তার আগে ১ জুন রনির বিরুদ্ধে চার দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

বখতিয়ার আলম রনি মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) ও সংরক্ষিত আসনের এমপি পিনু খানের ছেলে। তার বাবা মৃত শামছুজ্জামান।