২৩ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৮ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

দিনাজপুরে বিজিবি চোরাচালানী সংঘর্ষ, নিহত ২


স্টাফ রিপোর্টার, দিনাজপুর ॥ বিরামপুর রেলস্টেশনে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) ও চোরাচালানিদের মধ্যে মঙ্গলবার বিকেলে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় বিজিবি চোরাচালানিদের ওপর কমপক্ষে ২০ রাউন্ড গুলি ছোড়ে। গুলিতে রেলস্টেশন চত্বরের এক হোটেল মালিক ও কর্মচারী নিহত হয়। নিহতরা হলেন, বিরামপুর পৌর শহরের পূর্বজগন্নাথপুরের শুকুর আলীর ছেলে শাহিন (২৫) ও আব্দুর রশিদের ছেলে সুলতান (২২)। প্রতিবাদে সড়ক ও রেলপথ অবরোধ করে রেখেছে এলাকাবাসী। প্রত্যক্ষদর্শীরা

জানান, খুলনা থেকে সৈয়দপুরগামী রূপসা এক্সপ্রেস ট্রেনটি বিকেল পাঁচটার দিকে বিরামপুর রেলস্টেশনে এসে থামে। এ সময় কিছু চোরাচালানি ওই ট্রেনে ভারতীয় মালামাল তুলতে গেলে বিরামপুর বিশেষ ক্যাম্পের বিজিবি সদস্যরা বাধা দেয় এবং কিছু পণ্য আটক করে। ট্রেনটি সৈয়দপুরের দিকে চলে গেলে চোরাচালানিরা বিজিবির কাছ থেকে আটক পণ্য ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে। তখন বিজিবি ও চোরাচালানিদের মধ্যে ধস্তাধস্তির একপর্যায়ে চোরাচালানিরা বিজিবির ওপর চড়াও হয়। এ সময় বিজিবি সদস্যরা এলোপাতাড়ি ২০ রাউন্ড গুলি ছোড়ে। এতে রেলস্টেশনের পশ্চিমপাশে দাঁড়িয়ে থাকা হোটেল মালিক শাহিন (২৫) ও তার কর্মচারী সুলতান গুলিবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই নিহত হয়। এ ঘটনার প্রতিবাদে উত্তেজিত এলাকাবাসী সন্ধ্যায় বগুড়া-দিনাজপুর সড়ক ও রেললাইনর ওপর গাছ ফেলে অবরোধ করে। এতে রাজশাহীগামী আন্তঃনগর তিতুমীর ট্রেন বিরামপুর রেলস্টেশনে আটকে পড়ে। এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। পরিস্থিতি মোকাবেলায় বিরামপুরে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: