১৯ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

শিক্ষার মান আগের চেয়ে বেড়েছে: শিক্ষামন্ত্রী


অনলাইন ডেস্ক ॥ শিক্ষার মান আগের চেয়ে বেড়েছে বলে সংসদে দাবি করেছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। তিনি বলেন, গত সাত বছর ধরেই শুনে যাচ্ছি শিক্ষার মান কমে যাচ্ছে। তবে মান কমে কোথায় যাচ্ছে? এটা ঠিক নয়। শিক্ষার মান কমেনি, বরং অনেক বেড়েছে। রাতারাতি শিক্ষার মান বৃদ্ধির দাবিও সঠিক নয়।

মঙ্গলবার সকালে জাতীয় সংসদে প্রস্তাবিত ২০১৫-১৬ অর্থবছরের বাজেট পাসের আগে মঞ্জুরি দাবির ওপর আনিত ছাঁটাই প্রস্তাবের আলোচনার সময় একথা বলেন মন্ত্রী।

শিক্ষামন্ত্রী জানান, স্কুলে শিক্ষার্থীদের নিয়ে যাওয়ার ব্যাপারে আমরা যুগান্তকারী পরিবর্তন এনেছি। সবকিছুকে আমরা একটা সিস্টেমের মধ্যে এনেছি। শিক্ষার মানোন্নয়নে সারা বিশ্বে আলোচনা চলছে, আগামী একশ’ বছরের পরিকল্পনা নেয়া হচ্ছে। তাই শিক্ষার মান বৃদ্ধি দু’এক বছরে হবে না, ধীরে ধীরে শিক্ষার মান আন্তর্জাতিক পর্যায়ে নিয়ে যেতে হবে।

তিনি বলেন, কম বরাদ্দ হলেও আমরা এক টাকা দিয়ে দুই টাকার কাজ করবো। যে বরাদ্দ দেয়া হয়েছে তাতেই আমরা ভাগাভাগি করে উন্নয়ন করবো। প্রতিটি টাকার সদ্ব্যব্যবহার করবো। দুর্নীতি, অনিয়ম ও অপচয় না হয় সেদিকে লক্ষ্য রেখেই আমরা শিক্ষা ব্যবস্থার আমূল পরিবর্তন আনবো।

শিক্ষাখাতে বরাদ্দ নিয়ে মন্ত্রী বলেন, এবারের বাজেটে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে উন্নয়ন খাতে ৪ হাজার ১৯৭ কোটি টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। যা গত বছরের বাজেটের বরাদ্দ থেকে মাত্র ৫৫ কোটি টাকা বেশি। এতো স্বল্প বরাদ্দ দিয়ে দাবি পূরণ করা যাবে না, পরে আমাকে গালিগালাজ করা ঠিক হবে না। যে বরাদ্দ দিয়েছে তার বিরোধিতা আমি করছি না, যা দিয়েছে তা দিয়েই কাজ করতে চাই। এক টাকা দিয়ে দুই টাকার কাজ করবো সেই মনোভাব নিয়ে আমরা কাজ করবো।

শিক্ষা মন্ত্রণালয় খাতে বাজেট বরাদ্দ অপ্রতুলতা নিয়ে ছাঁটাই প্রস্তাব আনিত ১০ জন সংসদ সদস্য কঠোর সমালোচনা করেন।

স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য রুস্তম আলী ফরাজী বলেন, শিক্ষায় বরাদ্দ কমানো হয়েছে। এ মন্ত্রণালয়ে আরো বরাদ্দ দেওয়া দরকার। তবে আমাদের শিক্ষার মান পড়ে যাচ্ছে।

হাজী সেলিম বলেন, শিক্ষায় বরাদ্দ আরও বাড়ানো দরকার। কিন্তু মন্ত্রী তো প্রশ্নফাঁস বন্ধ করতে পারছেন না।

জাপা সংসদ সদস্য ফখরুল ইমাম বলেন, বর্তমানে গোল্ডেন প্লাসের জোয়ার চলছে। কিন্তু উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষার্থীরা এখনো ভর্তি হতে পারে না। তাহলে শিক্ষার মান কোথায় যাচ্ছে।