২৪ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৭ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

আদমজী ইপিজেড থেকে ৯ বছরে ১৬৪২ মিলিয়ন ডলার পণ্য রফতানি


মোঃ খলিলুর রহমান, সিদ্ধিরগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ থেকে ॥ নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজী জুট মিলের জায়গায় গড়ে ওঠা আদমজী ইপিজেডে বর্তমানে ৪১ হাজার শ্রমিক কর্মচারী ও কর্মকর্তা কাজ করছে। এ ইপিজেড থেকে গত ৯ বছরে বিদেশে রফতানি করা হয়েছে ১৬৪১.২২ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের পণ্য। এ পর্যন্ত বিনিয়োগ করা হয়েছে ৩১২ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। ২০০২ সালের ৩০ জুন বিএনপি সরকার ১২শ’ কোটি টাকা লোকসানের অজুহাতে আদমজী মিলটিকে চিরতরে বন্ধ করে দেয়। ফলে প্রায় ২৫ হাজার শ্রমিক কর্মচারী ও কর্মকর্তা চাকরি হারিয়ে বেকার হয়ে পড়ে। ঐতিহ্যবাহী মিলটি বন্ধের ১৩তম বছর পূর্তি আজ। ২০০৬ সালে মিলটির জায়গায় গড়ে তোলা হয় আদমজী ইপিজেড।

জানা গেছে, ঢাকা শহরের প্রাণকেন্দ্র থেকে ১৫ কিলোমিটার এবং ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ৪০ কিলোমিটার ও চট্টগ্রাম বন্দর থেকে ২৫৫ কিলোমিটার দূরবর্তী নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জের আদমজীনগরীতে গড়ে তোলা হয়েছে আদমজী ইপিজেড।

ইপিজেডের নির্ভরযোগ্য সূত্র থেকে জানা গেছে, ২৪৫.১২ একর জমির ওপর আদমজী ইপিজেড স্থাপিত হয়েছে। এ ইপিজেডে মোট প্লটের সংখ্যা ২২৯টি। ৬০টি দেশী-বিদেশী শিল্প প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠেছে। এর মধ্যে দেশী মালিকাধীন ১৮টি, বিদেশী মালিকাধীন ২৬টি এবং যৌথ মালিকাধীন ১৬টি শিল্প প্রতিষ্ঠান রয়েছে। ১০টি প্রতিষ্ঠান রয়েছে নির্মাণাধীন। বর্তমানে ৪৫টি কারখানা চালু রয়েছে। প্রতিটি প্লটের আয়তন ২ হাজার বর্গমিটার। কোন কোন শিল্প প্রতিষ্ঠান ১০-এর অধিকও প্লট বরাদ্দ নিয়েছে। এসব কারখানায় গার্মেন্টস, জিপার, কার্টন, হ্যাঙ্গার, লেভেল, ট্যাগ, জুতা, সোয়েটার, টেক্সটাইল, মোজা, জুয়েলারি, পলি ও ডায়িং ইত্যাদি পণ্য উৎপাদন হচ্ছে। যা ১০০ ভাগ রফতানিযোগ্য। শিল্প প্রতিষ্ঠানগুলোতে বর্তমানে ৪১ হাজার শ্রমিক-কর্মকর্তা-কর্মচারী কাজ করছে। এর মধ্যে ২৩১ জন বিদেশি কর্মকর্তা-কর্মচারীও রয়েছেন। ২০১৪-২০১৫ অর্থবছরে ৪৪ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগ করা হয়েছে। প্রতিষ্ঠার পর থেকে এ পর্যন্ত বিনিয়োগ করা হয়েছে ৩১২ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। আদমজী ইপিজেড থেকে ২০১৪-২০১৫ ৪২০ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের পণ্য রফতানি করা হয়েছে। এ পর্যন্ত গত ৯ বছরে সর্বমোট ১৬৪১.২২ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের পণ্য রফতানি করা হয়। হংকং, কানাডা, জাপান, রোমানিয়া, সিঙ্গাপুর, জার্মানি, ইউইএ, আমেরিকা, থ্যাইল্যান্ড, ভারত, মালয়েশিয়া, পাকিস্তান, ইউক্রেন, দক্ষিণ কোরিয়া, কুয়েত, পর্তুগাল, চীন ও মরিশাসসহ বেশ কয়েকটি উন্নত দেশ এইপিজেডে বিনিয়োগ করেছে।

এদিকে এশিয়ার বৃহত্তম আদমজী পাটকলটি ২০০২ সালের ৩০ জুন চারদলীয় জোট তথা বিএনপি সরকার ১২শ’ কোটি টাকা লোকসানের অজুহাতে বন্ধ করে দেয়। ফলে ২৪ হাজার ৯১৬ শ্রমিক-কর্মকর্তা-কর্মচারীকে চাকরি হারাতে হয়।