২২ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

কয়েক লাখ মানুষ ॥ ডিএনডিতে পানিবন্দী


মোঃ খলিলুর রহমান, সিদ্ধিরগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ ॥ গত কয়েক দিনের অব্যাহত প্রবল ও ভারি বর্ষণে ডিএনডির অভ্যন্তরে আবারও ব্যাপক জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। রূপ নিয়েছে কৃত্রিম বন্যায়। পানিবন্দী হয়ে পড়েছে কয়েক লাখ মানুষ। রাস্তাঘাট, বাড়িঘরসহ নানা স্থাপনা পানিতে ডুবে যাওয়ায় পানিবন্দী মানুষজন দুর্বিষহ জীবনযাপন করছে। জলাবদ্ধতার শিকার লোকজন রাত জেগে পানির সঙ্গে যুদ্ধ করছে। ডিএনডির ভেতরে স্থান ভেদে এখন ১ থেকে ৪ ফুট পানিতে তলিয়ে আছে বলে ভুক্তভোগীরা জানায়। তবে পানিবন্দী মানুষজন দ্রুত পানি নিষ্কাশন না হওয়ায় এ ব্যাপক জলাবদ্ধার সৃষ্টির কারণ বলে অবহিত করেছেন। তবে ডিএনডি পাম্প হাউজের কর্মকর্তারা বলছেন, ডিএনডি থেকে দ্রুত পানি নিষ্কাশন করতে হলে আরও ৮৮ কিউমেক ক্ষমতা সম্পন্ন নতুন ৪টি নতুন পাম্প স্টেশন নির্মাণ করতে হবে।

জানা যায়, কয়েক দিনের প্রবল ও ভারি বর্ষণের পানিতে ডিএনডির প্রজেক্ট অভ্যন্তরে ব্যাপক জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। সাধারণত নিম্নাঞ্চলের রাস্তাঘাট, বাড়িঘর, স্কুল-কলেজ, মসজিদ-মাদ্রাসা পানিতে তলিয়ে গেছে। ময়লা-আবর্জনা ও নর্দমার সঙ্গে বৃষ্টি পানি মিশে বিষাক্ত পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে। অব্যাহত প্রবল বর্ষণে ঢাকার ডেমরা, যাত্রাবাড়ী, কদমতলী, শ্যামপুর, নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ, ফতুল্লা থানার বহু নিচু এলাকার বাড়িরঘর ও রাস্তাঘাট বৃষ্টির পানিতে তলিয়ে আছে। এতে ডিএনডির অভ্যন্তরে বসবাসরত প্রায় কয়েক লাখ লোক পানিবন্দী হয়ে মানবেতর জীবন-যাপন করছে।

ডিএনডির পাম্প হাউসের এক কমকর্তা জানায়, নিষ্কাশন খালে পানি পলিথিনসহ বিভিন্ন ময়লা-আবর্জনা এসে পাম্প হাউজের মুখে জমা হচ্ছে। এতে পানি নিষ্কাশনে বাঁধাগ্রস্ত হচ্ছে। তিনি আরও জানান, পাম্প হাউজের মুখ থেকে প্রতিদিন ৩ ট্রাক ময়লা-আবর্জনা পরিষ্কার করা হচ্ছে। তিনি প্রধান নিষ্কাশন খালসহ শাখা-প্রশাখা খালগুলো ময়লা-আবর্জনা না ফেলতে ডিএনডিবাসীকে অনুরোধ জানান। শনিবার বেলা ২টায় পাম্প হাউসে সরেজমিন গেলে কর্মকর্তারা জানান, ১২৮ কিউসেক ক্ষমতাসম্পন্ন ৪টি পাম্প ও একই স্থানে ৫ কিউসেক ক্ষমতাসম্পন্ন আরও ২২টি পাম্প এবং ডেমরার বামৈল ও শুকুরসীতে আরও ৫ কিউসেক ক্ষমতাসম্পন্ন ৪টি সর্বক্ষণিক চালু রয়েছে। তবে তারা বলছেন, যদি আর বৃষ্টিপাত না হয় তবে ডিএনডি থেকে পুরোপুরি পানি নিষ্কাশন করতে অন্তত ১৫ দিন সময় লাগবে।

বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবোর) ঢাকা যান্ত্রিক পাম্প হাউজ বিভাগের (শিমরাইল পাম্প হাউজ) নির্বাহী প্রকৌশলী এম গোলাম সারওয়ার ডিএনডিতে ব্যাপক জলাবদ্ধতার কথা স্বীকার করে জানান, ডিএনডি থেকে দ্রুত পানি নিষ্কাশন করতে হলে ৮৮ কিউসেক ক্ষমতাসম্পন্ন আরও নতুন ৪টি পাম্প স্টেশন নির্মাণ করতে হবে। তাহলে ডিএনডিবাসী জলাবদ্ধতার কষ্ট থেকে মুক্তি পাবে। তিনি জানান, যদি আরও ৩-৪ দিন একটানা বৃষ্টি হয় তবে ডিএনডি’র ৮০ ভাগ এলাকা ডুবে যাবে।