২৩ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৮ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

২০১৯ সালের নির্বাচনে খালেদার অংশগ্রহণের সুযোগ নেই: তথ্যমন্ত্রী


অনলাইন ডেস্ক॥ তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, বেগম খালেদা জিয়া গণতন্ত্রের জন্য বিষফোঁড়া। গণতন্ত্র বাঁচাতে এ ধরনের বিষফোঁড়াকে কেটে বাদ দিতে হবে। ২০১৯ সালের নির্বাচনে গণতান্ত্রিক শক্তির সাথে গণতান্ত্রিক শক্তির নির্বাচন হবে। ওই নির্বাচনে গণতন্ত্রের অচল মাল সচল হওয়ার কোন সুযোগ নেই। আগুন সন্ত্রাসী বেগম খালেদা জিয়ার সেই নির্বাচনে অংশগ্রহণের কোন সুযোগ থাকবে না।

শনিবার সংসদে ২০১৫-১৬ অর্থবছরের বাজেটের ওপর আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

হাসানুল হক ইনু বলেন, শেখ হাসিনা বাজার নিয়ন্ত্রণ ও প্রবৃদ্ধি বাড়াতে সক্ষম হয়েছেন। কারণ তিনি সংসদে বসেন, সংসদ সদস্যদের মাধ্যমে জনগণের কথা শোনেন, মানুষের দুঃখ-দুর্দশার প্রতি নজর দেন, খালেদা জিয়া তা করেননি। খালেদা জিয়া জঙ্গি উৎপাদন করেছেন, উনি যুদ্ধাপরাধীদের পুরস্কৃত করেছেন, হত্যা-খুনের পরিকল্পনা করেছেন, শেখ হাসিনাকে হত্যার চেষ্টা চালিয়েছেন এবং মিথ্যাচারের রাণী হওয়ার প্রচেষ্টা চালিয়েছেন। এখানেই শেখ হাসিনার সাথে জঙ্গি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার পার্থক্য।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, গত ৬ বছর ধরে আগুন সন্ত্রাস, জ্বালাও-পোড়াও-অবরোধ-হরতালের মধ্যে বাজেটের ৯৫ শতাংশ বাস্তবায়ন করতে সক্ষম হয়েছে। খালেদা জিয়া তা ৫ বছরে ৯০ শতাংশের বেশি বাস্তবায়ন করতে পারেনি। এই বিরূপ পরিস্থিতি না থাকলে আমরা শতভাগ বাস্তবায়নে চমৎকার ফল দেখানো সম্ভব হতো।

তিনি বলেন, বেগম খালেদা জিয়া যতই লম্ফজম্ফ করেন না কেন মানুষ পোড়ানোর অপরাধ থেকে কখনোই রেহাই পাবে না। তেমনি যুদ্ধাপরাধীদেরও তিনি বাঁচাতে পারবেন না। বেগম খালেদা জিয়া যতই গণতন্ত্রের লেবাস পরেন ইতিহাস তার স্থান নির্ধারণ করে দিয়েছে। সারা জীবন তাকে রাজনীতির বাইরেই থাকতে হবে এবং আদালতের বারান্দায় হাজিরা দিতে হবে। সূত্র: বাসস