২৩ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

অবকাঠামো ও জমি সঙ্কটে বিদেশী বিনিয়োগ কমছে


অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ বাংলাদেশে অবকাঠামো এবং জমি সঙ্কটসহ বেশকিছু সমস্যার কারণে বিদেশী বিনিয়োগ কমছে বলে মনে করেন বিশ্লেষকরা। তারা বলছেন, অবকাঠামো, জমি সঙ্কট এবং গ্যাস, বিদ্যুতসহ মৌলিক বিষয়গুলোতেই সমস্যা রয়েছে বিদেশী বিনিয়োগ উৎসাহিত করার ক্ষেত্রে।

গত বুধবার জাতিসংঘের বাণিজ্য বিষয়ক সংস্থা আঙ্কটাড বলেছে, বাংলাদেশে গতবছর সরাসরি বিদেশী বিনিয়োগ চার দশমিক পাঁচ শতাংশ কমেছে। বাংলাদেশে গতবছর প্রায় ১৫৩ কোটি ডলারের সরাসরি বিদেশী বিনিয়োগ এসেছে। তার আগের বছর অর্থাৎ ২০১৩ সালে সরাসরি বিদেশী বিনিয়োগ ছিল প্রায় ১৬০ কোটি ডলারের মতো। বিদেশী বিনিয়োগ কমার ক্ষেত্রে গত দু’বছরে বিরোধী রাজনৈতিক জোটের কর্মসূচী অনেকাংশে দায়ী বলে সরকারের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে। এ বিষয়ে বিশ্লেষকদের অনেকে বলেছেন, ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচনের আগে সহিংস রাজনৈতিক পরিস্থিতি থাকলেও একতরফা সেই নির্বাচনের পর বছরজুড়ে রাজনৈতিক কর্মসূচী ছিল না এবং একটা স্থিতিশীল পরিবেশ ছিল। ফলে রাজনৈতিক অনিশ্চয়তা থাকলেও এটিই মূল সমস্যা নয়।

এ প্রসঙ্গে বেসরকারী গবেষণা সংস্থা সিপিডির গোলাম মোয়াজ্জেম বলেছেন, অবকাঠামো, জমি সঙ্কট, এবং গ্যাস, বিদ্যুতসহ মৌলিক বিষয়গুলোতেই সমস্যা রয়েছে বিদেশী বিনিয়োগ উৎসাহিত করার ক্ষেত্রে। তিনি বলেছেন, অবকাঠামোসহ মৌলিক বিষয়গুলোতে একই ধরনের সমস্যার কারণে দেশী বিনিয়োগকারীরাও নতুন বিনিয়োগে উৎসাহিত হচ্ছে না।

সংসদে নতুন অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটের ওপর আলোচনায় সংসদ সদস্যদের বক্তব্যেও বিনিয়োগ কমার বিষয়টি অগ্রাধিকার পাচ্ছে। আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ সংসদে বক্তৃতায় বিনিয়োগ বোর্ডকে ব্যর্থ হিসেবে অভিহিত করে এর সমালোচনা করেছেন। একজন সংসদ সদস্যের প্রশ্নের লিখিত জবাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও বলেছেন, বিএনপি এবং জামায়াতের কোন কারণ ছাড়া কর্মসূচী দেশের ভাবমূর্তির ওপরও প্রভাব ফেলেছে। সেটাও বিদেশী বিনিয়োগকে অনেকাংশে নিরুৎসাহিত করেছে।

তবে অর্থ প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান বলেছেন, বিদেশী বিনিয়োগ কমার বিষয় নিয়ে সরকার উদ্বিগ্ন নয়। কৃষিখাতসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে দেশী বিনিয়োগ অনেক বেড়েছে। তবে অবকাঠামোসহ মৌলিক বিষয়ে সমস্যার কারণে দেশী বিনিয়োগকারীরাও নতুন বিনিয়োগে উৎসাহিত হচ্ছে নাÑ এমন বক্তব্য মানতে রাজি নন অর্থ প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান। তার বক্তব্য হচ্ছে, অবকাঠামো, বিদ্যুত এবং গ্যাস সরবরাহসহ মৌলিক বিষয়গুলোতে অনেক উন্নতি হয়েছে। সরকার এখন বিনিয়োগ বান্ধব পরিবেশ তৈরির জন্য কাজ করছে বলেও তিনি দাবি করেন।