১৭ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৪ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

চীন-মার্কিন বার্ষিক সংলাপ শুরু


দক্ষিণ চীন সাগরে চীনের ভূখণ্ডগত দাবি এবং যুক্তরাষ্ট্রের সরকারী কম্পিউটারগুলোতে চীনা হ্যাকারদের ব্যাপক হামলার অভিযোগসহ ‘জটিল কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ সম্পর্ক’ নিয়ে বিশ্বের দুই শীর্ষ অর্থনীতির মধ্যে মঙ্গলবার মন্ত্রিসভা পর্যায়ের তিন দিনব্যাপী ‘খোলাখুলি’ বার্ষিক সংলাপ শুরু হয়েছে। আলোচনার প্রাক্কালে সোমবার উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী এন্টনি ব্লিংকেনের নেতৃত্বে মার্কিন পক্ষ চীনের দক্ষিণ চীন সাগর প্রশ্নে ভূমিকায় যুক্তরাষ্ট্রের উদ্বেগ পুনরুল্লেখ করেন। একজন সিনিয়র মার্কিন কর্মকর্তা বলেন, সাইবার হ্যাকিং-এর বিষয়টি ‘প্রত্যক্ষভাবে মোকাবেলা’ করা হবে। খবর এএফপি ও ইয়াহু নিউজের।

ভাইস প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি ও অর্থমন্ত্রী জ্যাকব লিউ আয়োজিত ব্যাপকভিত্তিক কৌশলগত ও অর্থনৈতিক সংলাপ (এসইডি) কাঠামোর বার্ষিক আলোচনায় যোগ দিতে ৪ শতাধিক চীনা কর্মকর্তা ওয়াশিংটনে সমবেত হয়েছেন। আলোচনায় ৮ জন মার্কিন মন্ত্রী অংশ নিচ্ছেন। ব্লিংকেন ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী জন কেরি’র নেতৃত্বে মার্কিন পক্ষ নিরাপত্তার প্রশ্ন নিয়ে চীনের স্টেট কাউন্সিলর ইয়াং জিয়েচি ও উপ-পররাষ্ট্রমন্ত্রী ঝাং ইয়েসুই’র সঙ্গে আলোচনা করছেন। অপরদিকে মার্কিন অর্থমন্ত্রী লিউ চীনা উপ-প্রধানমন্ত্রী ওয়াংইয়াংয়ের সঙ্গে অর্থনৈতিক বিষয়ে আলোচনা করছেন। দুই দেশের মধ্যে আস্থা হ্রাস পাওয়া ও মতপার্থক্য বৃদ্ধির প্রেক্ষাপটে এই আলোচনা অনুষ্ঠিত হচ্ছে, যদিও গত বছর ৫৯ হাজার কোটি ডলারের দ্বিমুখী বাণিজ্যের মধ্য দিয়ে তাদের মধ্যে বলিষ্ঠ অর্থনৈতিক সম্পর্ক বজায় ছিল। বিশ্ব অর্থনীতিতে যুক্তরাষ্ট্রের আধিপত্যের বিরুদ্ধে বেইজিংয়ের চ্যালেঞ্জ এবং চীনে মার্কিন বাণিজ্য পরিচালনায় বিধিনিষেধ আরোপে যুক্তরাষ্ট্রের উদ্বেগ বৃদ্ধি পাচ্ছে। দুই পক্ষ জলবায়ু পরিবর্তন, ইরান ও উত্তর কোরিয়ার পরমাণু কর্মসূচী নিয়ে অভিন্ন উদ্বেগ, আফগানিস্তান পরিস্থিতি ইসলামী জঙ্গী তৎপরতার বিরুদ্ধে লড়াই এবং বৈশ্বিক উন্নয়নের প্রতি সমর্থনসহ সহযোগিতার ক্ষেত্রগুলোর ওপর জোর দিয়ে উত্তেজনা প্রশমনের চেষ্টা চালাবে। উত্তেজনার বেশকিছু ক্ষেত্র সত্ত্বেও চীন সেপ্টেম্বরে প্রেসিডেন্ট শি-জিনপিং-এর সফরের প্রস্তুতির জন্য কয়েকটি নির্বিঘœ বৈঠক অনুষ্ঠানের আশা করছে। চীনের দক্ষিণ চীন সাগরের একটি বড় অংশের মালিকানা দাবি এবং ওই এলাকায় কৃত্রিম দ্বীপ নির্মাণ বন্ধে বেজিংয়ের প্রতি ওয়াশিংটনের বারংবার অনুরোধকে কেন্দ্র করে বিশ্বের দুই শীর্ষ অর্থনীতির মধ্যে বিরোধ চলছে। তবে, গত মাসে চীন বলেছে, চীন তার সমুদ্রসীমার আরও বাইরে এবং আকাশে আরও দৃঢ়তার সঙ্গে তার সামরিক শক্তি তুলে ধরবে। সাইবার গুপ্তচরবৃত্তি নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের অভিযোগ প্রশ্নে দুই দেশের সম্পর্কে অবনতি ঘটেছে এবং মানবাধিকার প্রশ্নে অব্যাহত মতপার্থক্য বিরাজ করছে। মার্কিন সরকারী গোপন তথ্য চুরির জন্য যুক্তরাষ্ট্রের কম্পিউটারগুলো হ্যাক করার দায়ে ওয়াশিংটন ৫ জন চীনা সামরিক কর্মকর্তাকে অভিযুক্ত করায় গত বছর বেজিং একটি দ্বিপাক্ষিক সাইবার ওয়ার্কিং গ্রুপের ওপর সাময়িক নিষেধাজ্ঞা জারি করে। যুক্তরাষ্ট্রের কম্পিউটার নেটওয়ার্কগুলোতে ভয়াবহ হামলার তথ্য উদঘাটিত হওয়ার উত্তপ্ত সময়ে দুই দেশের মধ্যে এই আলোচনা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।