২০ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৫ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

রাজশাহীতে ওয়াসা এমডির স্ত্রীর লাশ উদ্ধার


স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী ॥ রাজশাহী ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক ধীরেন্দ্রনাথ সরকারের বাড়ি থেকে তার স্ত্রীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার দুপুরে রাজপাড়া থানা পুলিশ নগরীর কাজিহাটা এলাকার রাজশাহী মহানগর পুলিশ সদর দফতরের পেছনে ধীরেন্দ্রনাথের সরকারী বাসভবন থেকে স্ত্রী চন্দনা রানী সরকারের (৪৫) লাশ উদ্ধার করে। ময়নাতদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে লাশ পাঠানো হয়। তার এ মৃত্যু নিয়ে রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে। রাজপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ মেহেদী হাসান বলেন, নিহতের শয়নকক্ষের মেঝেতে লাশ পড়ে থাকা অবস্থায় পাওয়া গেছে। তার গলায় দাগ রয়েছে।

তবে ওই ঘরের সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ওড়না প্যাঁচানো ও ঘরের মধ্যে মই পাওয়া গেছে। ওসি বলেন, ওয়াসা এমডি ধীরেন্দ্রনাথ সরকার পুলিশকে জানিয়েছেন সকালে তিনি হাঁটতে বের হয়েছিলেন। বাসায় ফিরে দেখেন তার স্ত্রীর লাশ মেঝেতে পড়ে আছে। মেয়ের সঙ্গে ঝগড়া করে ফ্যানের সঙ্গে ওড়না প্যাঁচিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে ঝুলে যায়। একপর্যায়ে ওড়না খসে মেঝেতে পড়ে গেলে গোঙানির শব্দে বাড়ির লোকজন টের পায়। এসময় বাড়িতে তার এক মেয়ে, এক ছেলে ও বৃদ্ধা শাশুড়ি ছিল বলে ধীরেন্দ্রনাথ পুলিশকে জানিয়েছেন। তার মেয়ে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী। আর ছেলে এ বছর এইচএসসি পরীক্ষা দিয়েছে বলে জানা গেছে। ঘটনার পর থেকে ওই বাড়িতে কোন সাংবাদিককে প্রবেশ করতে দেয়নি পরিবারের সদস্যরা। এ ব্যাপারে ওয়াসার এমডি ধীরেন্দ্রনাথ সরকারের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

ফতুল্লায় পুলিশ ডাকাত গুলিবিনিময় ॥ আহত ৫

নিজস্ব সংবাদদাতা, সিদ্ধিরগঞ্জ, নারায়ণগঞ্জ, ২২ জুন ॥ ফতুল্লায় পুলিশের সঙ্গে ডাকাতদের গুলিবিনিময় হয়েছে। এতে ইব্রাহীম (৪০) নামে এক ডাকাত গুলিবিদ্ধ হয়েছে। ডাকাতদের ব্যবহৃত ট্রাকে ধাক্কায় পুলিশের মাইক্রোবাস ক্ষতিগ্রস্ত হলে এক এসআই ও এএসআইসহ ৫ পুলিশ আহত হয়েছে।

আহত ডাকাতকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে পুলিশ জানায়। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার ভোরে দাপার তুফানী জামে মসজিদ সংলগ্ন এলাকায়।

আহতরা হলো- ফতুল্লা মডেল থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক নাহিদ আহমেদ, এসআই কামরুল হাসান, কনস্টেবল সুলতান, মোজাম্মেল ও সোহাগ। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে রডভর্তি ট্রাক, ৩টি বড় আকৃতির চাকু, একটি সুইজ গিয়ার চাকু ও একটি কাটার উদ্ধার করে।

ঝিনাইগাতী উপজেলা চেয়ারম্যান বরখাস্ত

নিজস্ব সংবাদদাতা, শেরপুর, ২২ জুন ॥ দুদকের দায়ের করা মামলায় চার্জশীটভুক্ত আসামি হওয়ায় শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলা চেয়ারম্যান বিএনপি নেতা আমিনুল ইসলাম বাদশাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। রবিবার স্থানীয় সরকার মন্ত্রণায়ের করা বরখাস্ত সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপনের বিষয়টি সোমবার শেরপুরের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ জাকীর হোসেন নিশ্চিত করেছেন। অন্যদিকে অপর এক আদেশে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের অনুপস্থিতকালীন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ আমিরুল ইসলাম মক্কুকে ভারপ্রাপ্ত উপজেলা চেয়ারম্যান হিসেবে নিয়োগ এবং চেয়ারম্যানের আর্থিক ক্ষমতাও দেয়া হয়েছে।

জানা যায়, দুর্নীতির অভিযোগে ২০১৩ সালের ৩ নবেম্বর দুদকের টাঙ্গাইল সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক জাহাঙ্গীর আলম বাদী হয়ে ঝিনাইগাতী উপজেলার ৭টি ইউনিয়নের চেয়ারম্যানদের বিরুদ্ধে পৃথক ৭টি মামলা দায়ের করেন। প্রতিটি মামলাতেই উপজেলা চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম বাদশাকে প্রধান আসামি করা হয়।