২০ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

হ্যাকারদের কারণে পোল্যান্ডে বিমান যাত্রা বাতিল, যাত্রীদের দুর্ভোগ


ফ্লাইট পরিকল্পনার জন্য ব্যবহৃত গ্রাউন্ড কম্পিউটারে হ্যাকারদের হামলার কারণে যাত্রা বাতিল করে পোল্যান্ডের এলওটি এয়ারলাইনের প্রায় ১৪০০ যাত্রীকে বিমান থেকে নামিয়ে আনতে বাধ্য হয়েছে কর্তৃপক্ষ। রবিবার ঘটনাটি ঘটেছে পোল্যান্ডের রাজধানী ওয়ারশ-র চোপিন বিমানবন্দরে।

ওইদিন বিকেলে কম্পিউটার সিস্টেমটি হ্যাকিংয়ের শিকার হয়। প্রায় পাঁচ ঘণ্টা চেষ্টার পর সিস্টেমটিকে ফের স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে আনা সম্ভব হয়।

কিন্তু এই সময়ের মধ্যে রাষ্ট্রীয় বিমান সংস্থাটির ১০টি জাতীয় ও আন্তর্জাতিক ফ্লাইট বাতিল করতে হয় এবং আরও ডজনখানেক ফ্লাইটের যাত্রা বিঘিœত হয়, জানিয়েছে এলওটি-র মুখপাত্র আদ্রিয়ান কুবিককি। খবর ওয়েবসাইট

যেসব যাত্রীকে নামিয়ে আনা হয়েছিল তাদের কিছু অংশ দীর্ঘ অপেক্ষার পর ফের বিমানে চড়ে গন্তব্যের উদ্দেশে রওয়ানা হতে পারলেও অধিকাংশই তা পারেননি। রবিবার সন্ধ্যায় এসব যাত্রীকে বিশেষ সেবা দিতে হয়েছে এয়ারলাইন কোম্পানিটির।

ফ্লাইট বাতিলের পর যেসব যাত্রী রাতে বাসায় ফিরতে পারেননি তাঁদের হোটেলে থাকার ব্যবস্থা করতে হয়েছে বলে জানিয়েছে এলওটি। কুবিককি জানিয়েছেন, ফ্লাইটগুলোর নিরাপত্তার বিষয়টি নিয়ে কোন ধরনের ঝুঁকি নেয়া হয়নি। তিনি আরও জানিয়েছেন, ওয়ারশতে আসা বিমানগুলো নিরাপদেই অবতরণ করেছে এবং অন্যকোন বিমানবন্দরে এ ঘটনার প্রভাব পড়েনি। সাইবার হামলার ঘটনাটি নিয়ে তদন্ত শুরু“ করেছে কর্তৃপক্ষ।

ভারতে সাংবাদিককে পুড়িয়ে হত্যা, গ্রেফতার ৩

ভারতের মধ্যপ্রদেশে এক সাংবাদিককে অপহরণের পর পুড়িয়ে মারার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে তিন ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বিবিসি জানিয়েছে, শুক্রবার রাতে নিজ রাজ্য মধ্যপ্রদেশের বালাঘাট থেকে অপহৃত হয়েছিলেন ৪০ বছর বয়সী সাংবাদিক সন্দ্বিপ কোঠারি। পরদিন সন্ধ্যায় পার্শ্ববর্তী মহারাষ্ট্র রাজ্যের একটি রেললাইনের পাশে তার আগুনে পোড়া মৃতদেহ পাওয়া যায়। নিজ এলাকার অবৈধ খনি নিয়ে লেখালেখি ও এ সংক্রান্ত একটি মামলা চালানোর কারণে তাকে এ পরিণতি বরণ করতে হয়েছে বলে অভিযোগ করেছে স্থানীয় গণমাধ্যমগুলো।

সন্দ্বিপ খুনের সঙ্গে জড়িত গ্রেফতার তিন ব্যক্তি অবৈধ খনি পরিচালনার সঙ্গেও জড়িত বলে সন্দেহ করছে পুলিশ। তবে পুলিশ কর্মকর্তা জেএস মারকাম বলেছেন, ‘মামলাটির তদন্তে প্রত্যেকটি দিক বিবেচনা করে দেখছি আমরা। এই অপহরণ ও হত্যার কারণ হিসেবে এখনই কিছু নির্দিষ্ট করা ঠিক হবে না।’ ভারতে সাংবাদিকরা প্রায়ই পুলিশ, রাজনীতিক ও আমলাদের মাধ্যমে হেনস্থা ও ভয়ভীতির শিকার হন।