২২ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৫ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

জয়পুরহাটে ৪ খুন আদালতে সুমনের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী


নিজস্ব সংবাদদাতা, জয়পুরহাট, ২১ জুন ॥ স্ত্রীর পরকীয়ার সন্দেহে ৪ খুনের দায়ে আটক জামাই সুমনকে রবিবার বিকেলে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট খায়রুল ইসলামের আদালতে হাজির করা হয়। আদালতে সুমন ১৬৪ ধারায় ৪ খুন সে নিজেই করেছে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিয়েছে এবং খুনের পেছনে পরকীয়া রয়েছে তাও আদালতকে জানায়। আদালতে সে জানায়, খোকন হাজদার সঙ্গে অনৈতিক সম্পর্ক শাশুড়ির সমর্থনেই হতো। এছাড়াও ঢাকায় বসবাস করাকালীন তার শাশুড়ি সুমনের স্ত্রীকে দিয়ে অসামাজিক কার্যকলাপ করাত। এদিকে স্ত্রীর পরকীয়ার ঘটনা শুধু স্বামীর সন্দেহ এই বিষয়টি ভীমপুর তালতলা গ্রামের সবার মুখে মুখে ফিরছে। সুমন হেমরমের স্ত্রী সিলভিয়ার পরকীয়ার ঘটনা রয়েছে এমন সত্যতা পড়শিরা কেউ স্বীকার করে না। তবে সুমন ঘটনার পর থেকেই তার স্ত্রীর পরকীয়ার বিষয়টি বলে আসছে। ২০০৭ সালে বিয়ের পূর্ব থেকেই ঢাকার এলিফেন্ট রোডে একটি কোম্পানিতে ম্যানেয়েল মারান্ডি ও সুমন হেমরম চাকরিরত থাকা অবস্থায় একে অপরের সঙ্গে পরিচিত হয়। এক পর্যায়ে ২০০৭ সালের ম্যানেয়েল মারান্ডি তার বড় মেয়ে সিলভিয়া মারান্ডির সঙ্গে সুমনের বিয়ে দিয়ে জামাইকে পাঁচবিবির ভীমপুর তালতলা গ্রামের নিজের বাড়িতেই ঘরজামাই রাখে। ২০১০ সালে ঢাকা যাওয়ার পূর্ব পর্যন্ত সুমন ও সিলভিয়ার মধ্যে দাম্পত্য জীবনের জটিলতার কোন খবর তাদের জানা নাই। ৫ বছর ঢাকায় থাকার পরে সুমন স্ত্রী, তিন পুত্র-কন্যাসহ পাঁচবিবির ভীমপুর তালতলায় শ্বশুরবাড়িতে ফিরে আসে। চাকরি জীবনের জমাকৃত টাকা দিয়ে ৪টি ভটভটি কিনে জীবিকা নির্বাহ করতে থাকে। পড়শিরা কেউ এই পরিবারে এই রকম হত্যাকা- ঘটবে এমন অসঙ্গতির বিষয় কেউ জানে না। হত্যাকা-ের পর পড়শিরা সবাই স্তম্ভিত হয়ে পরে।

হত্যাকা-ের পর গ্রেফতারকৃত সুমন হেমরম সাংবাদিকদের জানায়, তার স্ত্রীর সঙ্গে খোকন হাজদা নামে এক যুবকের পরকীয়া সম্পর্ক রয়েছে। কিন্তু অনুসন্ধানে জানা গেছে, খোকন হাজদা সুমনের স্ত্রী সিলভিয়ার সম্পর্কে মামা। মামা-ভাগ্নির এ ধরনের অনৈতিক সম্পর্কের কথা খোকন হাজদাসহ কেউ বিশ্বাস করতে চায় না। কেন সুমনের এ ধরনের কথোপকথন এ বিষয়ে পুলিশ ও এলাকাবাসীর ভাষ্য সুমন সন্দেহ প্রবণতায় ভোগে। তার স্ত্রী সিলভিয়ার উচ্ছলতা ও হাসিখুশি মেলামেশাকে পর পুরুষের সঙ্গে সম্পর্ক রয়েছে এমন সন্দেহ করতে থাকে। এ বিষয়ে সিলভিয়ার বাবা সুমনের শ্বশুর ম্যানেয়েল মারান্ডির সঙ্গে কথা বললে তিনি জানান, সুমন মানসিক রোগী এমন কোন প্রমাণ আমাদের হাতে নেই বা তার এ ধরনের চিকিৎসা হয়েছে এমনটিও জানা নেই।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: