২০ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

শফিকের সেঞ্চুরিতে ঘুরে দাঁড়াল পাকিস্তান


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ক্রিকেটে পাকিস্তান কেন ‘আনপ্রেডিক্টেবল’ সেটি আরও একবার প্রমাণ করল দলটি। শ্রীলঙ্কার ৩০০ রানের জবাবে একপর্যায়ে ৯৬ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে ফলোঅনের শঙ্কায় পড়েছিল সফরকারীরা। চতুর্থ দিন শেষে সেই তারাই প্রথম ইনিংসে এগিয়ে ১১৭ রানে! আসাদ শফিকের দুরন্ত সেঞ্চুরি (১৩১) ও সরফরাজ আহমেদের প্রায় সেঞ্চুরি (৯৬) এবং শেষদিকে জুলফিকার বাবরের ম্যারাথন হাফ সেঞ্চুরির (৫৬) ওপর ভর করে গল টেস্টে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছে পাকিস্তান। দ্বিতীয় ইনিংসে ৬৩ রানে শ্রীলঙ্কার ২ উইকেট তুলে নিয়ে উল্টো ড্রাইভিং সিটে মিসবাহ-উল হকের দল। সব মিলিয়ে লঙ্কানরা পিছিয়ে ৫৪ রানে।

বৃষ্টির জন্য প্রথম দিনের পুরোটাই ভেস্তে গিয়েছিল। আবহাওয়া বাগড়া বাধিয়েছে মাঝের দুই দিনও, খেলা হয়েছে ১৫১ ওভার। তবে শনিবার গলের আকাশ ছিল রৌদ্রোজ্জ্বল, হেসেছে শফিক-সরফরাজের ব্যাট, ঘুরে দাঁড়িয়েছে অতিথিরা। ৫ উইকেটে ১১৮ রান নিয়ে দিনের খেলা শুরু করে পাকিস্তান। বাকি ৫ উইকেট হারিয়ে আরও ২৯৫ রান যোগ করে মিসবাহ বাহিনী। যেখানে নেতৃত্ব দেন টেস্ট স্পেশালিস্ট শফিক। তাকে চমৎকার সঙ্গ দেন সরফরাজ-বাবর। ষষ্ঠ উইকেটে সর্বোচ্চ ১৩৯ রান যোগ করে ফলোঅন বাঁচিয়ে দলকে শক্ত অবস্থানে নিয়ে যান শফিক-সরফরাজ। শেষদিকে শফিক-বাবরের জুটিটাও ছিল দুর্দান্ত। নবম উইকেটে মাত্র ১৯ ওভারে মূল্যবান ১০১ রান যোগ করেন তারা।

ক্যারিয়ারের সপ্তম সেঞ্চুরি তুলে নেয়ার পথে ১৩১ রান করেন শফিক। মাত্র ৪ রানের জন্য চতুর্থ সেঞ্চুরি পাননি সরফরাজ। ৯৬ রানে সাজঘরে ফেরেন তিনি। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে পাকিস্তানী হয়ে ছয় ও সাত নম্বর পজিশনে নেমে উভয়ের ৯০ বা তার বেশি রানের মাত্র চতুর্থ ঘটনা এটি। কেবল তাই নয়, এর মধ্য দিয়ে ষষ্ঠ বা তার নিচের জুটিতে ৭৮২ রান যোগ করে রেকর্ড গড়েন শফিক-সরফরাজ। তারা পেছনে ফেলেন গ্রেট ইমরান খান-সেলিম মালিক (৫৮৯) জুটিকে। শেষদিকে লঙ্কান বোলারদের ভুগিয়েছেন বাবরও। মূলত স্পিনারই যার প্রথম পরিচয়, সেই তিনি দশ নম্বরে নেমে খেলেছেন ৬০ বলে ৫৬ রানের ঝড়ো ইনিংস! স্বাগতিকদের হয়ে সফল দিলরুয়ান পেরেরা ৪, ধাম্মিকা প্রসাদ ৩ ও নুয়ান প্রদীপ নেন ২টি করে উইকেট। পাকিস্তানী টেল-এন্ডাররাও যেখানে দারুণ ব্যাট চালিয়েছেন, সেখানে শেষ বিকেলে ব্যর্থ স্বাগতিকরা। চতুর্থ দিন শেষ ২১ ওভারে ৬৩ রান তুলতেই গুরুত্বপূর্ণ ২ উইকেট হারিয়ে বসেছে শ্রীলঙ্কা। ৫ রানে ওয়াহাবের শিকারে পরিণত হন প্রথম ইনিংসের সেঞ্চুরিয়ান কুশল সিলভা। সাঙ্গাকারাকে (১৮) তুলে নেন ইয়াসির শাহ। স্বস্তি এই যে, বৃষ্টিতে প্রথম দিনের অনেকটাই নষ্ট হয়েছিল, তাই ব্যাটিংয়ে লঙ্কানদের অবিশ্বাস্য-পতন না হলে ড্র-ই হতে পারে গলের শেষ পরিণতি।

স্কোর ॥ শ্রীলঙ্কা প্রথম ইনিংস ৩০০/১০ (১০৯.৩ ওভার; কুশল ১২৫, সাঙ্গাকারা ৫০, চান্দিমাল ২৩, করুণারতেœ ২১, ম্যাথুস ১৯, ভিতানাগে ১৮, দিলরুয়ান ১৫; জুলফিকার ৩/৬৪, ওয়াহাব ৩/৭৪, হাফিজ ২/৪০, ইয়াসির ২/৭৯) ও দ্বিতীয় ইনিংস ৬৩/২ (২১ ওভার; করুনারতেœ ৩৬*, সাঙ্গাকারা ১৮, কুশল ৫, দিলরুয়ান ০*; ওয়াহাব ১/১১, ইয়াসির ১/২১)

পাকিস্তান প্রথম ইনিংস ৪১৭/১০ (১১৩.১ ওভার; শফিক ১৩১, সরফরাজ ৯৬, জুলফিকার ৫৬, ইউনুস ৪৭, মিসবাহ ২০; ধাম্মিকা ৩/৯১, দিলরুয়ান ৪/১২২, হেরাথ ১/৯৯) ** চতুর্থ দিন শেষে

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: