২১ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৩ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

হলদি বাটং হলদি বাটুংরেই ॥ আইস হলদি বাটি


‘হলদি বাটং হলদি বাটুংরেই ও তাই সারকু মাটির হলদি/এই হলদি বালির গাওত, সবাই মিলি মাখি/আইস হলদি বাটিরে’

পাড়া প্রতিবেশী, আত্মীয়স্বজন এসেছে। ছোট ছোট শিশুরা হৈচৈ করে সারা বাড়ি মাতিয়ে রেখেছে, বাড়ির বড়রা ব্যস্ত। ভাবী ননদরা হলুদ ও মেহেদি গান গেয়ে হলুদ বাটছে। মহিলারা হলুদ শাড়ি পরে নিয়েছে, গায়ে হলুদের সাজ।

বিয়ের নাচ ॥ কুড়িগ্রামসহ রংপুর অঞ্চলে বিয়েতে বর-কনেকে গোসল করানোর সময় বিশেষ নাচের প্রচলন দেখা যায়। বর-কনেকে কেন্দ্র করে প্রতিবেশী নারীরা এ নাচের আয়োজন করে। তারা ধান, দূর্বা, পান, কড়ি ইত্যাদি দিয়ে বিয়ের নাচে অঙ্কগ্রহণ করে। এ ধরনের নাচে বিশেষ গীত প্রচলিত রয়েছে।

অলঙ্কার ॥ গহনার মধ্যে টিকলি, টায়রা, বালা, কানের দুল, নাকফুল, নোলক, গলার চেইন, গলার বড় গহনা, নেকলেস, আংটি, পায়েল, নুপুর ইত্যাদির প্রচলন লক্ষণীয়। পুরুষের জন্য সাধারণত হাতের আংটি,ঘড়ি এবং গলার চেইনের ব্যবহার দেখা যায়।

সাজসজ্জা ॥ বিয়ে বাড়ির প্রধান ফটকের সামনে কলাগাছ দিয়ে তোরণ নির্মাণ করা হয়। বাঁশ কেটে তা দিয়ে সুন্দর করে বেড়া তৈরি করে নক্সাদার ফটক তৈরি করা হতো এক সময়। এছাড়া বাড়ি সাজানোর উপকরণ হিসেবে কাগজের ফালি বানিয়ে তা দিয়ে রিং তৈরি করে কাগজে-শিকল তৈরি করে তা দিয়ে সাজানো হতো। কিন্তু সময়ের সঙ্গে বদলে গেছে এসব বিয়ের গেট কিংবা বাড়ি সাজানো। এখন শহরে কি গ্রামে ডেকোরেটর প্রতিষ্ঠানের লোকজন বাড়ির প্রধান ফটকে বাঁশ ও রঙ্গিন কাপড় দিয়ে গেট বা তোরণ নির্মাণ করে।

Ñরাজু মোস্তাফিজ, কুড়িগ্রাম থেকে