১৯ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

আসাদ সরকার সিরীয়দের ওপর গ্যাস হামলা চালিয়েছে


সিরিয়ায় বেসামরিক নাগরিকদের ওপর ক্লোরিন গ্যাস অস্ত্র ব্যবহারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ এবং মার্চ মাস থেকে ধারাবাহিকভাবে গ্যাস হামলা চালানোর প্রেক্ষিতে উড্ডয়ন নিষিদ্ধ এলাকা ঘোষণার জন্য তার ও চিকিৎসাকর্মীরা যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে। সিরিয়ায় যারা কাজ করেছেন সেই চিকিৎসকরা বুধবার মার্কিন কংগ্রেসে সাক্ষ্যদানকালে রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহারকারী সিরীয় সরকারকে শাস্তিদানের প্রতিশ্রুতি পালন এবং বেসামরিক নাগরিকদের রক্ষায় উড্ডয়ন নিষিদ্ধ অঞ্চল বলবৎ করতে প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার প্রতি আহ্বান জানান।

সিরীয় আমেরিকান মেডিক্যাল সোসাইটির ডাঃ মোহামেদ তেনারি বলেন, ‘আমি সিরিয়ায় বসবাস করি। আমি কখনও এসব হেলিকপ্টার অথবা বিমানকে চরমপন্থীদের বা তাদের প্রশিক্ষণ শিবিরের বিরুদ্ধে ব্যবহার হতে দেখিনি। আমরা যা দেখেছি তা হলো এসব বিমান ও হেলিকপ্টার হাসপাতাল ও স্কুলের বিরুদ্ধে ব্যবহৃত হচ্ছে। ডাঃ তেনারি ইদলিবে একটি ফিল্ড হাসপাতাল পরিচালনা করেন। স্থানীয়রা জানিয়েছেন, ইদলিব ক্লোরিন গ্যাসের হামলায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকার অন্যতম। তিনি ১৬ মার্চের ওই রাতের কথা বলেন, যখন তার নিজ শহর শারমিনের ওপর একের পর এক বিস্ফোরক ব্যারেল বোমা নিক্ষেপ করা হয়। সে সময় বাতাস ভরে যায় ব্লিচের মতো রাসায়নিক পদার্থের গন্ধে। তিনি দোভাষীর মাধ্যমে বলেন, হামলার পর কয়েকজন লোকের শ্বাস-প্রশ্বাসের সমস্যা হয়। তাদের চোখ ও গলা জ্বলছিল। তবে ডাক্তাররা স্বীকার করেছেন যে, সিরীয় সরকারই যে ওই হামলার পেছনে আছে সে ব্যাপারে শতভাগ নিশ্চিত হওয়া যায়নি। -আল-জাজিরার।