২৪ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

কোটি টাকার সেতু কাজে আসছে না


নিজস্ব সংবাদদাতা, শেরপুর, ১৮ জুন ॥ উন্নয়ন-অগ্রগতি আর উৎকর্ষ সাধনের এ যুগেও শেরপুরের সীমান্তবর্তী ঝিনাইগাতী উপজেলার ১০ গ্রামের মানুষের যাতায়াতের মাধ্যম কেবলই নৌকা। স্বাধীনতার দীর্ঘ ৪৪ বছর এবং বিশেষ করে এলাকায় ৮ কি.মি. দৈর্ঘ্যরে একটি রাস্তায় কোটি টাকার ব্রিজ নির্মাণের ১১ বছর পরও রাস্তাটি পাকা না করায় বর্ষা মৌসুমে ওই ১০ গ্রামের প্রায় ২৪/২৫ হাজার মানুষকে পোহাতে হচ্ছে চরম দুর্ভোগ। এরপরও টনক নড়ছে না এলাকার জনপ্রতিনিধিসহ দায়িত্বশীল মহলের।

জানা যায়, স্বাধীনতার পর থেকে এ পর্যন্ত শেরপুরের অন্যান্য এলাকার মতো সীমান্তবর্তী ঝিনাইগাতী উপজেলায় উন্নয়নের ছোঁয়া লাগলেও এখনও প্রশস্তকরণ ও পাকাকরণের অভাবে পড়ে আছে মাটিয়াপাড়া সিএ্যান্ডবি রোড থেকে সারিকালিনগর, গজারমারী হয়ে বাগেরভিটা বাজার পর্যন্ত ৮ কিলোমিটার রাস্তা। ফলে প্রতিবছর বর্ষা মৌসুমে একমাত্র বাহন নৌকাযোগে পারাপার হতে গিয়ে চরম দুর্ভোগের শিকার হতে হয় মাটিয়াপাড়া, সারিকালিনগর, বালুরচর, কালিনগর, নয়াপাড়া, দাঁড়িয়ারপাড়, কান্দুলী, কুচনিপাড়া, বাগেরভিটা ও কোনাগাঁও গ্রামের স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থী, কৃষকসহ এলাকাবাসীর।

এ ব্যাপারে এলজিইডি’র ঝিনাইগাতী উপজেলা প্রকৌশলী আমির আলী বলেন, নিচু এলাকার ওই রাস্তাটি প্রশস্তকরণসহ পাকাকরণে অনেক অর্থের প্রয়োজন। তবে যেহেতু ওই রাস্তায় বেশ আগেই ব্রিজ নির্মিত হয়েছে, সেহেতু ব্রিজটি রক্ষাসহ এলাকাবাসীর দীর্ঘদিনের দুর্ভোগ লাঘবে রাস্তাটি উঁচু, প্রশস্ত ও পাকাকরণে প্রস্তাব প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।