২১ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

বাফুফে লটারির পুরস্কার বিতরণ


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) বর্তমান কার্যনির্বাহী কমিটি উদীয়মান ও প্রতিভাবান তরুণ খেলোয়াড় সৃষ্টিসহ ফুটবলের পুনর্জাগরণ ও দেশের ফুটবলের উন্নয়নের লক্ষ্যে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশের ফুটবলের উন্নয়নে ব্যয়ভার নির্বাহের লক্ষ্যে বাফুফে তহবিল সংগ্রহের জন্য লটারির টিকেট বিক্রয় কার্যক্রম গত বছরের ১০ নবেম্বর থেকে শুরু হয়েছে, যা গত ৯ ফেব্রুয়ারি শেষ হয় এবং ওই লটারির ‘ড্র’ গত ১০ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হয়। এ লটারির পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠান বুধবার দুপুরে মতিঝিলের বাফুফে ভবনের কনফারেন্স রুমে অনুষ্ঠিত হয়। পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন নৌ পরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান। তার হাত থেকে প্রথম পুরস্কার (চেক) গ্রহণ করেন কুমিল্লা ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হান্নান (৩০ লাখ টাকা বা ঢাকায় একটি ফ্ল্যাট) এবং তৃতীয় পুরস্কার গ্রহণ করেন বরিশাল জেলার এনামুল কবির (১ লাখ ৬০ হাজার টাকা)। কোন দাবিদার না থাকায় দ্বিতীয় পুরস্কার নিতে বাফুফে ভবনে কাউকে উপস্থিত হতে দেখা যায়নি। এ পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে বাফুফের পক্ষে উপস্থিত থেকে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন বাফুফের সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুস সালাম মুর্শেদী, সহ-সভাপতি ও ডেভেলপমেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান বাদল রায়, সদস্য ফজলুর রহমান বাবুল, সাধারণ সম্পাদক আবু নাইম সোহাগ ও বাফুফে লটারি ২০১৪ কনসালটেন্ট আলম কবির।

প্রথম পুরস্কার বিজয়ী কুমিল্লা ক্লাব মূলত একটি সামাজিক প্রতিষ্ঠান। এ পুরস্কারের একটি বড় অংশ সামাজিক ও ক্রীড়া খাতে ব্যয় হবে। তবে কি পরিমাণ অর্থ ব্যয় হবে তা ক্লাবের কর্তারা নির্ধারণ করবেন। আর তৃতীয় পুরস্কার বিজয়ী এনামুল কবির একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত। তিনি এ অর্থ পারিবারিক ও পড়াশোনার জন্য ব্যয় করবেন। এ লটারি থেকে প্রায় ৮০ লাখ টাকা আয় করেছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন। সর্বমোট অর্ধকোটি টাকার ১১৬৫টি পুরস্কার প্রদান করা হয়েছে। আর বিক্রি হয়েছে ২০ লাখ টিকেট (২ কোটি টাকার টিকেট)। ফোটা ফোটা জল দিয়ে যেমন সাগর গঠিত হয়, তেমনি একটি একটি করে টিকেট কিনলে তার অর্থ দিয়ে গঠিত হতে পারে বাংলাদেশের ফুটবলের সুনীল ভবিষ্যত।

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: