২২ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

সব বাধা পেরিয়ে


রুমানা পারভীন

স্টাফ রিপোর্টার, কুড়িগ্রাম ॥ নাগেশ্বরী উপজেলার বেরুবাড়ী বাজার এলাকার গরিব শিক্ষক রুহুল আমিন খন্দকার ও হামিদা বেগমের ৩ মেয়ে। প্রমত্তা দুধকুমর তাদের পৈত্রিক ভিটেমাটি ছাড়া করলেও সন্তানদের পড়ালেখায় অদম্য আগ্রহে কষ্ট করেও খরচ চালাতেন। বাবা ও মার সে কষ্টকে শ্রদ্ধা জানাতে নিজের চেষ্টা, নিষ্ঠা, একাগ্রতায় নাগেশ্বরীর বেরুবাড়ী উচ্চ বিদ্যালয়ের বিজ্ঞান বিভাগ থেকে জিপিএ-৫ পেয়েছে রুমানা আক্তার পারভীন। সে উচ্চ শিক্ষা নিয়ে শিক্ষকতা করতে চায়।

সোহেল রানা

স্টাফ রিপোর্টার, পঞ্চগড় ॥ জেলা সদরের ধাক্কামারা ইউনিয়নের খোলাপাড়া গ্রামের সফিকুল ইসলামের ছেলে সোহেল রানা। সে এবার খাঁনপুকুর খোলাপাড়া স্কুল থেকে দিনাজপুর বোর্ডের অধীনে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে বিজ্ঞান বিভাগে জিপিএ-৫ পেয়েছে। ৩ ভাই এক বোনের মধ্যে সোহেল রানা বড়। বাবা সফিকুল ইসলাম দর্জির দোকানের কর্মচারী হিসেবে কাজ করে কোনমতে সংসার চালাতেন। কিন্তু বছর খানেক আগে অন্য এক নারীকে বিয়ে করে অন্যত্র চলে গেছেন। এরপর থেকে চোখে অন্ধকার দেখছেন সোহেল রানার মা শিউলী বেগম। একটি বেসরকারী সংস্থা থেকে ঋণ নিয়ে বাড়ির উঠোনে মুদি দোকান দিয়েছেন। দোকানের আয় দিয়েই কোনমতে চলে তাদের সংসার। সোহেল রানার ইচ্ছা উচ্চ শিক্ষা নিয়ে সে প্রকৌশলী হবে। কিন্তু তাদের পরিবারের যে অবস্থা তাতে করে তার লেখাপড়া চালিয়ে যাওয়াটাই এখন বড় চ্যালেঞ্জ।