১৭ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৮ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

এ্যান্ড্রয়েড ফোন যখন উইন্ডোজ ল্যাপটপ


অভিনব এক ডকিং স্টেশনের ডিজাইন পেটেন্ট করিয়ে নেয়ার জন্য আবেদন করেছে দক্ষিণ কোরিয়ান ইলেকট্রনিক্স জায়ান্ট স্যামসাং। এ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমচালিত যে কোন স্মার্টফোন বা ট্যাবলেটকে ওই ডকিং স্টেশনেজুড়ে দিলেই স্বয়ংক্রিভাবে উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেমে চলা শুরু করবে ওই ডিভাইস। প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট ম্যাশএবল এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, ডকিং স্টেশনের পেটেন্টের জন্য মার্কিন পেটেন্টে এ্যান্ড ট্রেডমার্ক অফিসে আবেদন করেছে স্যামসাং। আলাদা কিবোর্ড আর স্ক্রিন থাকবে ওই ডকিং স্টেশনে। প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট ম্যাশএবল জানিয়েছে, ওই ডকিং স্টেশন বাণিজ্যিক উৎপাদন করে ভালো সাড়া পেতে পারে স্যামসাং। স্মার্টফোন হিসেবে যেমন এ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসের জনপ্রিয়তা বেশি, তেমনি ল্যাপটপের ওএস হিসেবে অনেক ক্রেতার উইন্ডোজই বেশি পছন্দ। স্যামসাংয়ের ডকিং স্টেশনটির ব্যবহার করলে একই সঙ্গে স্মার্টফোন আর ল্যাপটপ বহন করার ঝক্কি থেকে রেহাই মিলতে পারে ব্যবহারকারীর। এই প্রযুক্তি ব্যবহারের জন্য এ্যান্ড্রয়েড ও উইন্ডোজ, উভয় অপারেটিং সিস্টেমই থাকতে হবে ডিভাইসে। ডকিং স্টেশনে জুড়ে দেয়ার সঙ্গে সঙ্গেই ডিভাইসটিকে উইন্ডোজ মোডে নিয়ে যাবে ওই ডকিং স্টেশন। ডকিং স্টেশনের স্ক্রিন আর কিবোর্ড দিয়ে সব কাজ সারতে পারবেন ব্যবহারকারী। পেটেন্টে ও ট্রেডমার্ক অফিসে স্যামসাংয়ের আবেদন অনুযায়ী, বাড়তি ট্র্যাকপ্যাড ও জুড়ে দেয়ার সুযোগ থাকবে ওই ডকিং স্টেশনে। উইন্ডোজ ছাড়াও ভিন্ন অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহারের সুযোগও রাখা হয়েছে পেটেন্টের আবেদনে। স্যামসাং ডকিং স্টেশনটির প্রযুক্তির পেটেন্ট করিয়ে নেয়ার জন্য আবেদন করলেও এর বাণিজ্যিক উৎপাদন করবে কি না তার কোন নিশ্চয়তা নেই বলে জানিয়েছে ম্যাশএবল। বরং স্যামসাং কোন ধরনের প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে সেদিকেই ওই পেটেন্ট আবেদনটি ইঙ্গিত করে বলে জানিয়েছে সাইটটি।

বৈচিত্র্যময় সেলফি তুলতে গিয়ে সাধের প্রাণটা বিসর্জন দিতে বসেছেন এক রাশিয়ান নারী। মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে সেলফি তুলতে গিয়ে ভুলে ট্রিগার টেনে বসেন ওই নারী। প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট সিনেট জানিয়েছে, মাথায় নয় মিলিমিটারের পিস্তল ঠেকিয়ে ঠেকিয়ে সেলফি তুলতে গিয়েছিলেন ২১ বছর বয়সী ওই রাশিয়ান

নারী। ওই পিস্তলের গুলিতেই মারাত্মক আহত হয়ে এখন আশঙ্কাজনক অবস্থায় আছেন তিনি। ২০১৪ সালের আগস্ট মাসে ঠিক একই রকমভাবে সেলফি তুলতে গিয়ে নিহত হন এক মেক্সিকান পুরুষ। মে মাসের তৃতীয় শুক্রবার সাগরের কিনারায় পাহাড় চূড়ায় দাঁড়িয়ে সেলফি তুলতে গিয়ে ভারসাম্য হারিয়ে প্রাণ হারান সিঙ্গাপুরের এক নাগরিক। এটিএ্যান্ডটি পরিচালিত জরিপের বরাত দিয়ে সিনেট জানিয়েছে, শতকরা ১৭ ভাগ মানুষ গাড়ি চালানোর সময় সেলফি তোলার অভ্যাসের কথা স্বীকার করেছেন। এই ধরনের অসতর্ক আচরণের কারণেই অনাকাক্সিক্ষত দুর্ঘটনা ঘটছে বলে জানিয়েছে সিনেট।

সূত্র : আইটি ডট কম