২১ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

বরিশালে যৌতুকের বলি হলো কলেজ ছাত্রী ইয়াসমীন


স্টাফ রিপোর্টার, বরিশাল ॥ দু’বছরের প্রেমের সম্পর্ক মেনে নিয়েছিল উভয় পরিবার। আনুষ্ঠানিকভাবে বিয়ের কথাবার্তাও হয়। কিন্তু বরের বাবা কনের বাবার কাছে দু’লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে। এতে অস্বীকৃতি জানালে কনেকে শুক্রবার সকালে মোবাইল ফোনে গালিগালাজ করা হয়।

এ ঘটনায় অভিমান করে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে কনে ইয়াসমীন। ঘটনাটি জেলার গৌরনদী উপজেলার খাঞ্জাপুর ইউনিয়নের ডুমুরিয়া গ্রামের। গ্রামের সিরাজ হাওলাদার জানান, তাঁর কলেজ পড়ুয়া কন্যা ইয়াসমীন খানমের (২২) সঙ্গে গত দু’বছর ধরে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে পার্শ্ববর্তী পশ্চিম সমরসিংহ এলাকার গ্রামপুলিশ হানিফ পাইকের (চৌকিদার) পুত্র শাহাদাত হোসেনের। বিষয়টি সম্প্রতি জানাজানি হলে উভয় পরিবার সামাজিকভাবে তাদের সম্পর্ক মেনে নিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে বিয়ের কথাবার্তা বলে। তিনি অভিযোগ করেন, বৃহস্পতিবার রাতে হানিফ মোবাইল ফোনে তাঁর কাছে দু’লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে। এতে তিনি অস্বীকৃতি জানান। শুক্রবার সকালে ফের হানিফ ফোন করে তাঁর মেয়েকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে। এতে অভিমান করে দুপুরে ইয়াসমীন তার শয়নকক্ষে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে।