২৩ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ২ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

বাগেরহাটে চিংড়ি পোনা সঙ্কট ॥ বিপাকে চাষী


স্টাফ রিপোর্টার, বাগেরহাট ॥ মৌসুমের শুরুতে পোনা সঙ্কটের কারণে বাগেরহাটের চিংড়িচাষীরা মহাবিপাকে পড়েছেন। চিংড়ি চাষ মৌসুমের এক মাস পার হলেও অধিকাংশ গলদাচাষী আজও তাদের ঘেরে চাহিদামতো পোনা ছাড়তে পারেননি। নদ-নদীতে এ বছর পোনার স্বল্পতা এবং দেশীয় হ্যাচারিগুলোতে কাক্সিক্ষত লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে উৎপাদন কম হওয়ার কারণে প্রধানত এ সঙ্কট সৃষ্টি হয়েছে। তাছাড়া নানা বিধিনিষেধ, ঘাটে ঘাটে চাঁদাবাজি, ঝুঁকিমুক্ত মানসম্মত হ্যাচারির পোনার অভাবেও সঙ্কট আরও তীব্র হয়েছে। এ অবস্থায় যা সামান্য পোনা পাওয়া যাচ্ছে তার দাম অস্বাভাবিক।

ফকিরহাট রেণুু পোনা সমিতির সভাপতি খান লিয়াকত হোসেন জানান, এ অঞ্চলে চাষীদের প্রতিবছর প্রায় ৩শ’ কোটি পোনার চাহিদা রয়েছে। এরমধ্যে ২৫-৩০ কোটি পোনা হ্যাচারি থেকে সরবরাহ হয়। বাকি পোনা নদ-নদী থেকে আহরণ করে চাহিদা মেটাতে হয়। কিন্তু এবার নদীতে পোনার সঙ্কট দেখা দিয়েছে। হ্যাচারিতেও উৎপাদন কম হয়েছে। হ্যাচারির ঝুঁকিমুক্ত মানসম্মত পোনার অভাব রয়েছে। তাছাড়া রাস্তায় রাস্তায় চাঁদাবাজির কারণে খরচ বেশি হচ্ছে, যা পাওয়া যাচ্ছে তা চাহিদার তুলনায় অত্যন্ত কম। ফলে দাম অস্বাভাবিক।

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা নারায়ণ চন্দ্র ম-ল বলেন, নদ-নদীতে যথেচ্ছা পোনা আহরণ, সুন্দরবনের নদী-খালে বিষ দিয়ে মাছ নিধনের ফলে এবার প্রাকৃতিক উৎস থেকে পোনা তেমন পাওয়া যায়নি। তাছাড়া এ বছর হ্যাচারিগুলোতেও কাক্সিক্ষত লক্ষ্যমাত্রায় উৎপাদন না হওয়ার কারণে গলদা পোনার সঙ্কট সৃষ্টি হয়েছে। তবে ভিন্ন উৎস থেকে এ চাহিদা পূরণের চেষ্টা করা হচ্ছে বলে তিনি জানান।