১৭ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

নৈশকোচে পেট্রোলবোমা দগ্ধ কলেজ শিক্ষক রঞ্জিত শর্মা অবশেষে মারা গেলেন


নৈশকোচে পেট্রোলবোমা দগ্ধ কলেজ শিক্ষক রঞ্জিত শর্মা অবশেষে মারা গেলেন

নিজস্ব সংবাদদাতা, কুমিল্লা ও রাঙ্গামাটি, ১২ জুন ॥ কুমিল্লার চান্দিনায় যাত্রীবাহী নৈশকোচে দুর্বৃত্তদের পেট্রোলবোমা হামলায় দগ্ধ রাঙ্গামাটির কলেজ শিক্ষক রঞ্জিত শর্মা ঢাকা মেডিক্যাল কলেজের বার্ন ইউনিটে ৯ দিন মৃত্যুর সঙ্গে লড়ে অবশেষে বৃহস্পতিবার গভীর রাতে মারা গেছেন।

গত ২ জুন রাতে ঢাকা থেকে রাঙ্গামাটিগামী ইউনিক পরিবহনের একটি বাস চান্দিনা উপজেলা সদরের পাট গবেষণা কেন্দ্র এলাকায় পৌঁছলে দুর্বৃত্তরা বাসটিতে পেট্রোলবোমা ছোড়ে। এতে কলেজ শিক্ষক রঞ্জিত শর্মাসহ অন্তত সাতজন দগ্ধ হন। গুরুতর আহত রঞ্জিত শর্মাসহ অন্যান্য দগ্ধদের প্রথমে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে নেয়া হয়। পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় রঞ্জিত শর্মা ও বিশ্ব সাহিত্য কেন্দ্রের উপদেষ্টা অঞ্জন কুমার দে’কে ৩ জুন ভোরে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে পাঠানো হয়। ঢামেকের বার্ন ইউনিটে ৯ দিন মৃত্যুর সঙ্গে লড়ে অধ্যাপক রঞ্জিত শর্মা বৃহস্পতিবার রাত সোয়া ৩টায় মারা যান। নিহত রঞ্জিত শর্মা চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ের সাইয়াখালী গ্রামের মৃত অধি মোহন শর্মার ছেলে। তিনি রাঙ্গামাটি সরকারী মহিলা কলেজের গণিত বিভাগের অধ্যাপক ছিলেন।

এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে চান্দিনা থানায় জামায়াত-শিবিরের ১৫ জনের নাম উল্লেখ করে ২০ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করে থানায় বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা দায়ের করে। এ মামলায় শুক্রবার পর্যন্ত পুলিশ উপজেলা জামায়াতের আমীর মাওলানা আবুল বাশার ও সেক্রেটারি মোশাররফ হোসেনসহ ৮ জনকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে। গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে রাজ্জাক নামের এক শিবির কর্মী কুমিল্লার আদালতে ঘটনার দায় স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দী দিয়েছে। তার জবানবন্দীতে এজাহার নামীয় আসামিদের নাম প্রকাশ পেয়েছে বলে পুলিশ জানিয়েছে। এ ঘটনায় জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মুহম্মদ গোলামুর রহমানকে প্রধান করে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। কুমিল্লার পুলিশ সুপার মোঃ শাহ আবিদ হোসেন জানান, ঘটনার সঙ্গে জড়িত অপর আসামি গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: