২৩ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৩ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

চিকিৎসককে মারধরের ঘটনায় পাল্টাপাল্টী মামলা


স্টাফ রিপোর্টার, বরিশাল ॥ হাসপাতাল ভাংচুর করে চিকিৎসককে মারধর করে আহত করেও ক্ষ্যান্ত হয়নি সন্ত্রাসীরা। হামলার ঘটনায় দায়ের করা মামলা থেকে রেহাই পেতে এবার ওই চিকিৎসকের বিরুদ্ধে নাটকীয়ভাবে যৌণ হয়রানীর মামলা দায়ের করা হয়েছে। শুক্রবার সকালে নাটকীয় মামলার খবর সর্বত্র ছড়িয়ে পরলে এলাকার সুশীল সমাজের মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। ঘটনাটি জেলার আগৈলঝাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের।

জানা গেছে, গত ৬ জুন আগৈলঝাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ভর্তি রোগীকে এক্স-রে করতে বলেন হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. বখতিয়ার আল মামুন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে রোগীর স্বজন ও স্থানীয় চিহ্নিত কতিপয় সন্ত্রাসীরা ডা. মামুনের ওপর হামলা চালিয়ে গুরুতর আহতসহ হাসপাতালের আসবাবপত্র ভাংচুর করে। এ ঘটনায় ডা. মামুন বাদি হয়ে আগৈলঝাড়া থানায় ওইদিনই একটি মামলা করেন। র‌্যাব ও পুলিশ সদস্যরা অভিযান চালিয়ে ওই মামলায় অন্যতম আসামি সন্ত্রাসী শামীম গাজী, গৌরনদীর হরিসেনা গ্রামের মাদক সম্রাট আব্দুস সামাদ আকন মুন্নাসহ চারজনকে গ্রেফতার করে।

চিকিৎসককে মারধর ও হাসপাতাল ভাংচুরের ঘটনায় দায়ের করা মামলা থেকে রেহাই পেতে মানিক হাওলাদারের স্ত্রী শারমিন বেগমকে বাদি করে ডা. মামুনের বিরুদ্ধে বুধবার বরিশাল সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী আদালতে মিথ্যে নারী নির্যাতনের মামলা দায়ের করা হয়েছে। বিজ্ঞ আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে বরিশাল সিভিল সার্জনকে তদন্ত পূর্বক প্রতিবেদন দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।