২৩ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

২৫ হাজার হজ যাত্রীর কোটা বৃদ্ধির সুপারিশ নাকচ


স্টাফ রিপোর্টার ॥ টানা চেষ্টা তদ্বির করেও হাজীদের কোটা বাড়ানো যায়নি। নির্ধারিত কোটা এক লাখ এক হাজার ৭৫৮ জনের অতিরিক্ত পঁচিশ হাজার হজযাত্রীর কোটা বৃদ্ধির সুপারিশ সরাসরি নাকচ করে দিয়েছে সৌদি সরকার। তাই নির্ধারিত কোটায় আগামী ১৮ জুনের মধ্যে সৌদি আরবে ব্যাংক হিসাব খোলা, টাকা জমা দেয়া, বাড়ি ভাড়া চুক্তি সম্পন্ন ও সৌদি মোয়াল্লেমদের সঙ্গে চুক্তিসহ যাবতীয় কাজ শেষ করতে হবে। মঙ্গলবার সকালে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। সহকারী সচিব (হজ) হাসিনা শিরীনের পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, অতিরিক্ত ২৫ হাজার হজযাত্রীর কোটা বৃদ্ধির যে সুপারিশ করা হয়েছিল তা সৌদি সরকার নাকচ করে দিয়েছে। ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় তবু কোটা বৃদ্ধির চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে। সৌদি সরকার তা বৃদ্ধি করলে গণমাধ্যমের মাধ্যমে তা সংশ্লিষ্ট সবার জ্ঞাতার্থে প্রচার করা হবে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, একবার নাকচ হওয়ার পর কোটা বৃদ্ধির আশা সুদূর পরাহত। অতএব নির্ধারিত কোটার মধ্যে যে সব এজেন্ট যে সংখ্যক হজযাত্রী প্রেরণের জন্য যোগ্য বিবেচিত হয়েছেন, তাদেরকে আগামী ১৮ জুনের মধ্যে সৌদি আরবে ব্যাংক হিসাব খোলা, টাকা জমাদান, বাড়ি ভাড়া চুক্তি সম্পাদন ও সৌদি মোয়াল্লেমদের সঙ্গে চুক্তিসহ যাবতীয় কাজ সম্পন্ন করার জন্য অনুরোধ জানানো হলো। নির্ধারিত তারিখের মধ্যে উল্লিখিত কাজগুলো সম্পন্ন করতে ব্যর্থ হলে হজ এজেন্টরা তাদের হজযাত্রী প্রেরণে ব্যর্থ হবেন। এ ধরনের অবহেলার জন্য সংশ্লিষ্ট হজ এজেন্টদের বিরুদ্ধে আইনগত ও শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সৌদি সরকারের এহেন অনড় মনোভাবের কারণে বাংলাদেশের হজ এজেন্সিগুলোর সংগঠন হাব কি ধরনের সিদ্ধান্ত নেয় তা এখনও জানা যায়নি।