২২ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

পুলিশের সঙ্গে বন্দুক যুদ্ধে ৭ হত্যাসহ ৩০ মামলার আসামি নিহত


নিজস্ব সংবাদাতা, লক্ষ্মীপুর, ৯জুন ॥ লক্ষ্ম¥ীপুরে পুলিশ-সন্ত্রাসী বন্দুক যুদ্ধে ৭টি হত্যাসহ ৩০টি মামলার পলাতক পুলিশের তালিকাভুক্ত আসামি জসিম বাহিনীর প্রধান জসিম নিহত হয়েছে। সদর উপজেলার বালাশপুর গ্রামে রাত দশটার দিকে এ ঘটনা ঘটে। একই সঙ্গে তার দু’জন সঙ্গী গুলিবিদ্ধ হয়েছে। এরা হচ্ছে, বেলজিয়াম সুমন ও রুবেল। এ সময় সন্ত্রাসীদের সাথে বন্দুক যুদ্ধে একজন এসআইসহ ৫ পুলিশ আহত হয়েছে। আহতদের লক্ষ্মীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। নিহতের পিতার নাম সহিদউল্যা। গ্রামের বাড়ি সদর উপজেলার দর্জিপাড়া গ্রামে।

পুলিশ সুপার শাহ মিজান শাফিউর রহমান খবরটি নিশ্চিত করেছেন। তিনি আরও জানান, বেলজিয়াম সুমনের বিরুদ্ধে রয়েছে ৮টি হত্যা মামলা। তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে একটি বিদেশী পিস্তল, ম্যাগাজিনসহ ৬রাউন্ড গুলি, একটি এলজি ও তিন রাউন্ড তাজা কার্তুজ, একটি চাপাতি, ৫টি মোবাইল।

আহত পুলিশ সদস্যদের সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার আনোয়ার হোসেন গুলিবিদ্ধ জসিমের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। লক্ষ্মীপুর পুলিশ সুপার জানান, বালাইশপুর এলাকায় জসিম তার বাহিনী নিয়ে অবস্থান করছিল। খবর পেয়ে পুলিশ অভিযান চালায়। এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে সন্ত্রাসীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। আতœরাক্ষার্থে পুলিশ পাল্টা গুলি চালায়। এতে বাহিনী প্রধান জসিমসহ তিন সন্ত্রাসী গুলিবিদ্ধ হয়। আহত হন একজন এসআইসহ পুলিশের পাঁচজন সদস্য। পুলিশ ওই সময় অপর দু’জন সন্ত্রাসীকে গ্রেফতার করেছে।

বন্দুক যুদ্ধের ঘটনায় চন্দ্রগঞ্জ থানায় পৃথক পৃথক মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে পুলিশ সূত্রে জানা গেছে। এদিকে ময়নাতদন্ত শেষে মঙ্গলবার অপরাহ্নে নিহতের লাশ সদর উপজেলার গ্রামের বাড়ি দর্জিপাড়ায় নিয়ে যাওয়া হয়। পরে জানাযা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তার লাশ দাফন করা হয়।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: