১৯ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৫ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

লক্ষ্মীপুরে জমিদারী সম্পত্তি দখলের পাঁয়তারা ॥ বিগ্রহ ভাংচুর


নিজস্ব সংবাদাদাতা, লক্ষ্মীপুর, ৮ জুন ॥ লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার দালাল বাজার শত বছরের ঐতিহ্যবাহী জমিদার বাড়ির গোবিন্দ জিউ মন্দিরের বিগ্রহ চুরি গেছে। রবিরার রাতে এ ঘটনা ঘটেছে। মন্দিরের সেবায়েত শংকর রায় জানান, রবিবার বিকেলেও বিগ্রহ ছিল। সকালে সেখানে গিয়ে মন্দিরের বিগ্রহের কিছু ভাঙ্গা অংশ বিশেষ পাওয়া যায়। সাইন বোর্ডটিও নিয়ে গেছে। পরে মন্দিরের দরজায় আমাদের দেয়া তালার ওপর আরও দু’টি তালা লাগিয়ে গেছে কে বা কারা। রবিবার সন্ধ্যায় পুজো-অর্চনা শেষে স্থানীয় পুলিশ ফাঁড়ির আনসার সদস্য খাকসা মন্দিরের অপর সেবায়েত রায়কে লাঞ্ছিত করার পর রাতে বিগ্রহ চুরির ঘটনা ঘটে। এর আগে ভূমি অফিসের স্থানীয় তহসিলদার মন্দির সংলগ্ন তিনটি পুকুর থেকে মাছ ধরে নিয়ে গেছে।

এ বিষয়ে সহকারী পুলিশ সুপারের (সার্কেল) সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, মন্দিরের ঐতিহাসিক নিদর্শন পুরাকীর্তি হিসেবে সংরক্ষণে আমরা বদ্ধপরিকর। মন্দিরের মূর্তি চুরি হওয়ার খবর আমার জানা নেই। তবে মন্দিরের সেবায়েত অভিযোগ নিয়ে এলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

পাক-ভারত যুদ্ধের পর তৎকালীন পাক সরকার জমিদার বাড়ির সম্পত্তিকে শত্রু সম্পত্তি ঘোষণা করে। কিন্তু ১৯৬৭ সালে জমিদার বাড়ির মন্দিরের সেবায়েত ঋশিকেশ চক্রবর্তী শত্রু সম্পতি নয় মর্মে নোয়াখালী সাব জজ আদালতে স্বত্ব ঘোষণামূলক মামলা করেন। পরবর্তীতে ১৯৬৯ সালে ঋশিকেশের এক আবেদনের প্রেক্ষিতে মহামান্য হাইকোর্ট নোয়াখালী সাব জজ আদালতে নিষ্পত্তি না পর্যন্ত সরকারের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেন। স্বত্ব¡মূলক মামলাটি বর্তমানে লক্ষ্মীপুর জেলা জজ আদালতে বিচারাধীন।