১৭ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৮ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

পূর্ণাঙ্গ প্রস্তুতি নিয়েই বাংলাদেশে আসছে ভারত


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ আর মাত্র একদিন। এরপরই ভারতীয় ক্রিকেট দল বাংলাদেশের মাটিতে পা রাখবে। গত বছর জুনে ৩ ওয়ানডে খেলে গিয়েছিল তারা। ওই সিরিজে পূর্ণাঙ্গ শক্তির দল না এলেও এবার পূর্ণশক্তি নিয়েই আসছে ভারত। এবার একটি টেস্ট ও তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ। এ বছর অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপে এবং পরবর্তীতে ঘরের মাঠে সফরকারী পাকিস্তানের বিরুদ্ধে দুর্দান্ত নৈপুণ্য দেখিয়েছে বাংলাদেশ দল। সে কারণে বেশ আটঘাট বেঁধেই আসছেন মহেন্দ্র সিং ধোনি-বিরাট কোহলিরা। ইতোমধ্যেই ধোনির নেতৃত্বে ওয়ানডে এবং কোহলির নেতৃত্বে টেস্ট দল ঘোষণা করেছে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড (বিসিসিআই)। তবে ক্রিকেটারদের ফিটনেস নিয়েও এখন বিশেষ মনোযোগ বোর্ডের। শুক্রবার কলকাতায় ফিটনেস টেস্ট দিতে এসেছেন ভারতীয় ক্রিকেটাররা। আজ ফিটনেস টেস্ট দিয়ে সোমবারই বাংলাদেশের উদ্দেশে রওনা হবেন। দীর্ঘদিন পর টেস্ট দলে ফিরেছেন অভিজ্ঞ স্পিনার হরভজন সিং। শ্রীলঙ্কার কিংবদন্তি অফস্পিনার মুত্তিয়া মুরালিধরন নির্ভরতার প্রতীক হয়ে ওঠা স্পিনার রবিচন্দ্রন অশ্বিনের পাশাপাশি ভাজ্জিকেও একাদশে দেখতে চান বলে জানিয়েছেন।

সর্বশেষ ২০১৩ সালের মার্চে হায়দরাবাদে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে টেস্ট খেলেছেন ৩৪ বছর বয়সী হরভজন। ডানহাতি এ অফস্পিনার শেষ পর্যন্ত অশ্বিনের কারণে একাদশে খেলতে পারবেন কিনা, তা নিয়ে আছে সংশয়। তবে অশ্বিনের সতীর্থ হিসেবে তাকেও স্কোয়াডে দেখতে চান মুরালিধরন। ভারতীয় নির্বাচকদের পরামর্শ দিয়েছেন একমাত্র টেস্টে হরভজন-অশ্বিন জুটিকে খেলানোর। আগামী ১০ জুন ফতুল্লায় একমাত্র টেস্টে বাংলাদেশের মুখোমুখি হবে ভারত। নির্বাচকদের উদ্দেশে মুরালিধরন বলেছেন, ‘শুধু আইপিএল নয়, সবখানেই ভাল খেলছেন হরভজন। টেস্টে ৪০০ উইকেট (১০১ ম্যাচে ৪১৩) নিয়ে যোগ্যতার প্রমাণও দিয়েছেন। ভারতের হয়ে আবারও দীর্ঘমেয়াদে খেলার জন্য বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচটি তার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। তাই বাংলাদেশের বিপক্ষে টেস্ট একাদশে হরভজন ও অশ্বিনকে খেলাতে পারেন নির্বাচকরা। দু’জন অফস্পিনার নিয়ে খেললে ভারতীয় দলের কোন অসুবিধা আমি দেখছি না।’

ভারতীয় দলও এবার বাংলাদেশ সফর নিয়ে বড় রকমের প্রস্তুতি নিচ্ছে। শুক্রবার কলকাতায় ফিটনেস টেস্ট দিতে যান ভারতীয় ক্রিকেটাররা। শনিবার ইডেন গার্ডেন্স স্টেডিয়ামে নিজেদের শারীরিক সামর্থ্য ও যোগ্যতার পরীক্ষায় অবতীর্ণ হবেন তারা। এ বিষয়ে বেঙ্গল ক্রিকেট এ্যাসোসিয়েশনের যুগ্ম সেক্রেটারি সুবির গাঙ্গুলী বলেন, ‘ফিটনেস টেস্ট দিতে সব ক্রিকেটারই এসেছে কলকাতায়। শনিবার (আজ) ফিটনেস টেস্ট দেয়ার পর সোমবার বাংলাদেশের উদ্দেশে বিমানে চড়বেন কোহলিরা।’ উল্লেখ্য, প্রথমবারের মতো জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের সিরিজ শুরুর আগে ফিটনেস টেস্ট নেয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে বিসিসিআই।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: