২৩ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

কক্সবাজারে মাছ চুরির অভিযোগে শ্রমিকের ওপর বর্বর নির্যাতন


স্টাফ রিপোর্টার, কক্সবাজার ॥ কক্সবাজারের শিল্পনগরী বিসিক এলাকায় একটি চিংড়ি প্রক্রিয়াজাতকরণ কারখানায় মাছ চুরির অভিযোগ এনে এক কিশোরকে পিটিয়ে পেটের নাড়ি ছিঁড়ে দিয়েছে ফ্যাক্টরি কর্তৃপক্ষ। ঘটনা জানাজানি হয়ে পড়ার ভয়ে দুইদিন ওই কারখানায় আটকে রেখে নামমাত্র চিকিৎসা করিয়ে অবস্থা অবনতি হচ্ছে দেখে রাতের আঁধারে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে এলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে দ্রুত চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন। পরে শহরের একটি প্রাইভেট হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা দেয়া হয়। হতদরিদ্র পরিবারের ওই কিশোর বর্তমানে অসহ্য যন্ত্রণায় নানার বাড়িতে কাতরাচ্ছে। খাওয়া নেই, নাওয়া নেই, জ্বালা-যন্ত্রণায় এক সপ্তাহ ধরে শুধু বিছানায় গড়াচ্ছে কিশোর আরিফ হোছাইন। শহরতলীর বিসিক এলাকায় কনসেপ্সন সী ফুডস নামের প্রায় বন্ধ একটি কারখানায় গত শনিবার অমানবিক এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় এলাকাবাসী ফুঁসে উঠছে দেখে ফ্যাক্টরি মালিক তার অধীনস্থ এক কর্মকর্তাকে দিয়ে ওই কিশোরের অপারেশন করিয়ে দিয়ে দায়িত্ব শেষ করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। স্থানীয় একাধিক সূত্র মতে, ঐ চুরির ঘটনায় জড়িত রয়েছেন কারখানার সুপার ভাইজারসহ কতিপয় কর্মকর্তা। অথচ উদোরপি-ি বুধোর ঘাড়ে চাপিয়ে দিয়ে যে স্টাইলে মারধর করা হয়েছে, এতে জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে রয়েছে ১৪ বছর বয়সের কিশোর আরিফ হোছাইন। মামলা করার সাহস না পেয়ে অসহায় ঐ কিশোরের গরিব পিতা আবদুল হাকিম শেষ পর্যন্ত শুক্রবার জেলা পুলিশ সুপার বরাবরে অভিযোগ দাখিল করেছেন।

গুরুতর জখম আরিফ হোছাইন শুক্রবার বিকেলে জানায়, ডাইরেক্টর সাহেব আমাকে পিটানো শুরু করলে আমি মাটিতে পড়ে যাই। তারপর পায়ের জুতা এবং হাঁটু দিয়ে আমার পেটে প্রচ- আঘাত করে। আরিফ আরও জানায়, দিনদুপুরে প্রকাশ্যে কিছু মাছের প্যাকেট স্টোররুম থেকে বের করে দিতে বললে আমি সাহেবদের হুকুম পালন করেছি মাত্র। কনসেপ্সন সী ফুডসের পরিচালক শাহরিয়ার চৌধুরী মারধরের কথা সত্য নয় দাবি করেন।