২২ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট পূর্বের ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

ঘাটতি মেটাতে ব্যাংক থেকেই নেয়া হবে ৩৮ হাজার ৫৩২ কোটি টাকা


অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ ২০১৫-১৬ অর্থবছরের বাজেটে ঘাটতি মেটাতে শুধু ব্যাংক ব্যবস্থা থেকেই নেয়া হবে ৩৮ হাজার ৫২৩ কোটি টাকা। যা জিডিপির ২ দশমিক ২ শতাংশ বলে বৃহস্পতিবার বাজেট বক্তৃতায় বলেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত। মন্ত্রী বলেন, নতুন বাজেটে ঘাটতি দাঁড়াচ্ছে ৮৬ হাজার ৬৫৭ কোটি টাকা, যা জিডিপির ৫ শতাংশ। বাজেট ঘাটতি অর্থায়নে বৈদেশিক উৎস থেকে ২৪ হাজার ৩৩৪ কোটি টাকা এবং অভ্যন্তরীণ উৎস থেকে ৫৬ হাজার ৫২৩ কোটি টাকা সংগ্রহ করা হবে

পরিসংখ্যানে দেখা যায়, ২০১৪-১৫ অর্থবছরের বাজেটে ব্যাংক ব্যবস্থা থেকে সরকারের ঋণের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছিল ৩১ হাজার ২২১ কোটি টাকা। যদিও সংশোধিত বাজেটে তা বাড়িয়ে ৩১ হাজার ৭১৪ কোটি টাকা করা হয়।

আগামী বাজেটে বৈদেশিক ঋণের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে ৩২ হাজার ২৩৯ কোটি টাকা, এ সময়ে ঋণ পরিশোধ করতে খরচ হবে ৭ হাজার ৯০৫ কোটি টাকা। সে হিসেবে নিট বৈদেশিক ঋণ দাঁড়াচ্ছে ২৪ হাজার ৩৩৪ কোটি টাকা। এছাড়া বৈদেশিক অনুদান থেকে ৫ হাজার ৮০০ কোটি টাকা সংগ্রহ করা হবে। যা চলতি অর্থবছরের তুলনায় ৪০৬ কোটি টাকা কম। চলতি অর্থবছরের বাজেটে সঞ্চয়পত্রের মাধ্যমে নিট ৯ হাজার ৫৬ কোটি টাকা সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছিল। ব্যাংক ব্যবস্থা পর্যাপ্ত তারল্য থাকায় আমানতের ওপর সুদ হার কমে যাওয়া সঞ্চয়পত্রের বিক্রি অনেক বৃদ্ধি পায়। এতে সংশোধিত বাজেটে সঞ্চয়পত্র বিক্রির লক্ষ্যমাত্রা ২১ হাজার টাকা নির্ধারণ করা হয়। তবে সঞ্চয়পত্রের ওপর সুদহার কমে যাওয়ায় আগামী অর্থবছরে সঞ্চয়পত্র বিক্রির লক্ষ্যমাত্রা ৬ হাজার কোটি টাকা কমানো হয়েছে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: