২৩ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

ইন্টারনেটে ভিডিও চিত্র, ঋষি বধূর আত্মহত্যা


স্টাফ রিপোর্টার, যশোর অফিস ॥ ধর্ষণের ভিডিও চিত্র মোবাইল ফোনে ধারণ করে ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়ায় আত্মহত্যার পথ বেছে নিলেন চৌগাছা পৌর এলাকার ঋষিপল্লীর হতদরিদ্র বধূ ও এক সন্তানের জননী ববিতা (২৫)। চৌগাছা পৌর এলাকার কারিগরপাড়ার বাসিন্দা জামাত আলীর ছেলে রানা (২৫) তাকে আত্মহত্যায় বাধ্য করেছে। গত বুধবার সে আত্মহত্যা করে। এই ঘটনায় চৌগাছায় চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে।

জানা গেছে, ববিতা কুঠিপাড়া মডেল প্রাইমারী স্কুলের ঝাড়ুদার ছিলেন। এই কর্মস্থলে আসা-যাওয়ার পথে উত্ত্যক্ত করে আসছিল প্রতারক রানা। সর্বশেষ প্রেমের অভিনয় করে যৌনসম্পর্ক আর সেই দৃশ্য ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয় রানা। এ কারণে লোকলজ্জার হাত থেকে পরিত্রাণ পেতে বুধবার দুপুরে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেন ববিতা।

জানা গেছে, ঋষিপাড়ার হতদরিদ্র বাসিন্দা রাজন কুমার (২৫) স্ত্রী-সন্তান নিয়ে বেশ কষ্টে সংসার চালাতেন। স্বামীর কষ্ট আর সংসারের অসচ্ছলতা কমাতে স্ত্রী ববিতা রানী (২৫) স্থানীয় কুঠিপাড়া মডেল প্রাইমারী স্কুলে ঝাড়ুদারের কাজ নিয়েছিলেন। দাম্পত্য জীবনে তাদের ৪ বছর বয়সের সঞ্জয় নামে এক পুত্র সন্তান রয়েছে।

পরিবার ও এলাকাবাসী জানায়, সম্প্রতি রানা ও ববিতা প্রাইমারী স্কুলের একটি পরিত্যক্ত ঘরে দৈহিক সম্পর্কে মিলিত হয়। মোবাইলে সেই দৃশ্য ভিডিও ধারণ করে সিডি বিক্রির দোকান আর ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয় সুচতুর রানা। অনেকের ধারণা, এই ভিডিও চিত্রের সিডি বিক্রি করে রানা হাতিয়েছে মোটা অঙ্কের টাকা। এ খবর ব্যাপকভাবে প্রচার হয়ে পড়লে লোকলজ্জা আর অপমানের হাত থেকে পরিত্রাণ পেতে বেছে নেন আত্মহত্যার পথ। আত্মহত্যার খবর পেয়ে ঘটনার নায়ক রানা আত্মগোপন করেছে। চৌগাছা থানার সেকেন্ড অফিসার শরিফুল ইসলাম শরিফ জানান, থানায় একটি আত্মহত্যা মামলা হয়েছে।

তবে আমরা আত্মহত্যার ঘটনায় নানা গুঞ্জন শুনতে পাচ্ছি। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পাওয়ার পর ব্যবস্থা নেয়া হবে। দোষী যেই হোক তাকে গ্রেফতার করে আইনের কাঠগড়ায় দাঁড় করানো হবে।