১৭ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

জঙ্গীরা আশুলিয়ায় ব্যাংক ডাকাতি করে নকশা এঁকে আটক সুমর তথ্য


জনকণ্ঠ রিপোর্ট ॥ দীর্ঘদিনের পরিকল্পনা মোতাবেক নকশা এঁকে সাভারের আশুলিয়ায় কমার্স ব্যাংকে ডাকাতির ঘটনা ঘটায় জঙ্গীরা। গত ৩০ মে ব্যাংক ডাকাতির সঙ্গে জড়িত নিষিদ্ধ জঙ্গী সংগঠন আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের শীর্ষ পর্যায়ের নেতা সুমন গ্রেফতারের পর এমন চাঞ্চল্যকর তথ্য পেয়েছে পুলিশ।

গত ২১ এপ্রিল দুপুরে বাংলাদেশ কমার্স ব্যাংকের কাঠগড়া বাজার শাখায় বোমা মেরে, গুলি চালিয়ে ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে ব্যাংকের ব্যবস্থাপক, নিরাপত্তারক্ষীসহ তিনজনকে হত্যা করে ক্যাশ লুটের ঘটনা ঘটে। স্থানীয়দের সঙ্গে ডাকাতদের ধাওয়া ও গুলির ঘটনা ঘটলে আরও চারজনের মৃত্যু হয়।

পুলিশ জানায়, সুমনের তথ্যমতে গাজীপুরের টঙ্গী থানাধীন আউচপাড়ার একটি বাড়ি থেকে উদ্ধার হয় ব্যাংক ডাকাতির দুটি নক্সা। দুটি নক্সার একটি পর্যালোচনা করে ব্যাংক ডাকাতির ‘অপারেশনের ছক’ উদঘাটনের বিষয়টি নিশ্চিত হয় পুলিশ ও গোয়েন্দারা। নক্সার সঙ্গে ব্যাংকের দ্বিতীয় তলার নক্সার হুবহু মিলে গেছে। নক্সায় ‘গোল’ চিহ্ন দিয়ে মানুষ, ‘টয়’ চিহ্ন দিয়ে টয়লেট, ‘এমজি’ দিয়ে ব্যাংক ম্যানেজারের কক্ষকে বোঝানো হয়েছে। এছাড়া নক্সায় ব্যাংকে ঢোকার ও বের হওয়ার পথও চিহ্নিত করা রয়েছে। অন্য নক্সাটিরও রহস্য উদঘাটনের চেষ্টা চলছে।

ঢাকা জেলার পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, আউচপাড়ার ভাড়া বাসায় বসেই ডাকাতির পরিকল্পনা হয়। ব্যাংক ডাকাতির ঘটনায় আল আমিন আদালতে ১৬৪ ধারায় দেয়া জবানবন্দীতেও গ্রেফতারকৃত শামীমের নেতৃত্বে ব্যাংক ডাকাতির ঘটনা ঘটানো হয় বলে জানায়।

গোয়েন্দা সূত্রে জানা গেছে, ময়মনসিংহের ত্রিশালে পুলিশ হত্যা করে তিন জঙ্গী ছিনিয়ে নেয়া তিন জেএমবি জঙ্গীর একজন সালাহউদ্দীনের সঙ্গে বিরোধের জের ধরে শামীম কয়েকজন অনুসারীকে নিয়ে সম্প্রতি আনসারুল্লাহ বাংলা টিমে যোগ দেয়।

গোয়েন্দারা বলছেন, আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের ফান্ডের টাকা যোগাড় করতেই ব্যাংক ডাকাতি করা হয়েছিল।