১৯ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরের ম্যানেজার দুই দিনের রিমান্ডে


স্টাফ রিপোর্টার, পঞ্চগড় ॥ পঞ্চগড়ের বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরে শুল্ক ফাঁকি দিয়ে আমদানিকৃত ভারতীয় চোরাই সাইকেল মামলায় স্থলবন্দর লিমিটেডের ম্যানেজার কাজী আল তারিকের দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত। সোমবার দুপুরে তারিক পঞ্চগড় সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন আবেদন জানায়। বিজিবি’র আইন পরিদর্শক ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা রওশন মোস্তফা জামিনের বিরোধিতা করে পাঁচ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট কৃষ্ণকান্ত রায় উভয়পক্ষের শুনানি শেষে জামিন না দিয়ে দুই দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। গত ১৯ মে বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরে শুল্ক ফাঁকি দিয়ে দুই হাজার চার শ’ ভারতীয় বাইসাইকেল আনা হয়। খবর পেয়ে চেকপোস্ট বসিয়ে সাইকেল বোঝাই পাঁচটি ট্রাক আটক করে পঞ্চগড় ১৮ বিজিবি। পরদিন ২০মে বিজিবির সুবেদার আবুল হোসেন বাদী হয়ে স্থলবন্দরের ম্যানেজার কাজী আল তারিকসহ ১৪ জনের বিরুদ্ধে বিশেষ ক্ষমতা আইনে পঞ্চগড় থানায় মামলা করেন। মামলাটি দিনাজপুর পুলিশের ইন্সপেক্টর পদবির কর্মকর্তা লিয়াজোঁ বিজিবির কাছে হস্তান্তর করা হয়। এরপর থেকে মামলার তদন্ত প্রক্রিয়া ভিন্নখাতে প্রবাহের চেষ্টা করা হচ্ছিল এবং পঞ্চগড় শহরের আবাসিক হোটেলে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তার সঙ্গে বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর সংশ্লিষ্ট কয়েক প্রভাবশালী মহলের গোপন বৈঠকের বিষয়টি ফাঁস হয়ে যায়। এ নিয়ে ৩১ মে দৈনিক জনকণ্ঠের দেশের পাতায় ‘পঞ্চগড়ে চোরাই সাইকেল মামলার ভবিষ্যত অনিশ্চিত’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হওয়ার পর উর্ধতন কর্তৃপক্ষের টনক নড়ে। তদন্তকারী কর্মকর্তা নিজের চাকরি রক্ষায় অভিযুক্ত আসামিদের আদালতে আত্মসমর্পণের পরামর্শ দেন।