২১ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

মানসম্পন্ন কলেজে ভর্তি নিয়ে উদ্বিগ্ন অভিভাবক


মামুন-অর-রশিদ, রাজশাহী ॥ বেসরকারী কলেজের শিক্ষক এএইচ কামরুজ্জামান। তার মেয়ে এবার রাজশাহী সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে জিপিএ-৫ পেয়েছে। কামরুজ্জামান উদ্বিগ্ন তার মেয়েকে ভাল কলেজে ভর্তি নিয়ে। রাজশাহী নগরীর ঐতিহ্যবাহী রাজশাহী সরকারী কলেজে মেয়েকে ভর্তি করার টার্গেট তার। তবে দুশ্চিন্তায় পড়েছেন তিনি। মেয়েকে ভর্তি করতে পারবেন কি না এই ভেবে। শুধু কামরুজ্জামান নয়, তার মতো হাজারো অভিভাবক এখন ছেলে-মেয়েদের ভাল কলেজে ভর্তি নিয়ে রীতিমতো উদ্বিগ্ন।

এসএসসির ফল প্রকাশের পর থেকেই এবার কলেজে ভর্তি নিয়ে টেনশনে পড়েছেন অভিভাবকরা। রাজশাহীতে হাতেগোনা কয়েকটি সরকারী কলেজে সবাই ভর্তির টার্গেট নিলেও সীমিত আসনের কারণে অনেকে ভর্তি হতে পারবে না। বিশেষ করে জিপিএ-৫ প্রাপ্তদের অনেকে সুযোগ পাবে না সরকারী কলেজগুলোয়। ফলে এবারো তুমুল ভর্তিযুদ্ধ হবে সরকারী কলেজগুলোতে। রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের অধীন এবারের জিপিএ-৫ পাওয়া ১৫ হাজার ৮৭৩ শিক্ষার্থীর টার্গেট এসব কলেজের দিকে। কিন্তু সব মিলিয়ে এ বোর্ডের অধীন বিভাগের ৮ জেলায় সরকারী কলেজে ভর্তির সুযোগ পাবে ১৯ হাজার ৮০০ জন।

গত বছরের চেয়ে পাসের হার এবং জিপিএ-৫ পাওয়া পরীক্ষার্থীর সংখ্যা কমলেও এবারের এসএসসি পরীক্ষায় সবচেয়ে বেশি শিক্ষার্থী উত্তীর্ণ হয়েছে রাজশাহী বোর্ডে। এ অঞ্চলে শিক্ষার্থী বাড়লেও গড়ে ওঠেনি ভাল মানের কলেজ। ফলে স্বনামধন্য কলেজগুলোয় বেশিরভাগ মেধাবী ছাত্রছাত্রী ভর্তির সুযোগ পাবে না। অন্যদিকে, অনেক কলেজে আসনশূন্য থাকবে। অবশ্য এসব অখ্যাত কলেজ বেশিরভাগই প্রত্যন্ত অঞ্চলে। রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের কলেজ পরির্দশক আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, রাজশাহী বোর্ডের আওতাভুক্ত উচ্চ মাধ্যমিক কলেজ রয়েছে ৭১৬। সব মিলিয়ে আসন রয়েছে ১ লাখ ৫৫ হাজার ৮০০। এবারের এসএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে এক লাখ ২১ হাজার ১০৮ জন শিক্ষার্থী। ফলে এ বছর বিভিন্ন কলেজের ৩৪ হাজার ৬৯২ আসনশূন্য থাকবে। তবে ভর্তিযুদ্ধ হবে শুধু সরকারী কলেজগুলোতে। কলেজ পরির্দশক বলেন, এবার ভর্তির ক্ষেত্রে তেমন বেগ পেতে হবে না শিক্ষার্থীদের। কিন্তু মূল ভর্তিযুদ্ধ হবে হাতেগোনা সরকারী কলেজে। অনুসন্ধানে জানা গেছে, এবার রাজশাহী অঞ্চলের অন্যান্য কলেজে শিক্ষার্থীদের অভাবে আসনশূন্য থাকবে, তেমনি মানসম্পন্ন কলেজগুলোয় আসন সংখ্যা নির্দিষ্ট থাকায় ভর্তি প্রতিযোগিতায় টিকতে পারবে না মেধাবী অনেক ছাত্রছাত্রী।