২২ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট পূর্বের ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

ইতালীয় স্বাদে পিৎজা গাই


খুব কমসংখ্যক পিৎজা শপ আছে যেখানে আসল ইতালিয়ান স্বাদের পিৎজা পাওয়া যায়। আর তার মধ্যে ‘পিৎজা গাই’ অন্যতম। ইতালিয়ান স্বাদের পিৎজা ছাড়াও পিৎজা গাইয়ে রয়েছে চিকেন উইংস বার-বি-কিউ, পাস্তা, মিটবল স্পাঘেটিসহ নানা পদের ইতালিয়ান খাবারের সমাহার। এই শপের স্বত্বাধিকারী হলেন নাভিদ হাসান। স্ত্রী ফারজিনা আমিনকে সঙ্গে নিয়ে তিনি ‘পিৎজা গাই’ প্রতিষ্ঠা করেন। ছোটবেলা থেকেই রান্নাবান্নার প্রতি দারুণ আগ্রহী ছিলেন নাভিদ। মায়ের কাছেই রান্নার হাতেখড়ি নাভেদের। নাভেদ এবং তার স্ত্রী সম্প্রতি একটি বেসরকারী রান্নার প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেন। সারাদেশ থেকে আসা হাজার হাজার প্রতিযোগীকে পেছনে ফেলে নাভিদ সেরা এগারোজনের মধ্যে নিজের জায়গা দখল করে নেন।

ইতালি যাওয়ার সুবাদে নাভিদ বেশ কয়েকটি ইতালিয়ান রেস্টুরেন্টে কাজ করেন। সেখানকার মানুষের খাবারের প্রতি ভালবাসা দেখে মুগ্ধ হন নাভিদ। আর এই মুগ্ধতার কারণে পিৎজা শপ খোলার ব্যপারে আগ্রহী হন নাভিদ, যার ফলশ্রুতিতেই ‘পিৎজা গাই’-এর পথচলা। পিৎজা গাইয়ের প্রথম পথচলা শুরু হয়েছিল ২০১২ সালের নবেম্বর মাসে বসুন্ধরায় অবস্থিত নাভিদদের নিজেদের বাসা থেকেই। স্ত্রীকে সঙ্গে নিয়ে স্বল্প পরিসরে শুরু করলেও খুব অল্পদিনেই পিৎজা গাইয়ের সুখ্যাতি চারদিকে ছড়িয়ে পড়ে। তখন নাভিদের ব্যবসাটি হোম ডেলিভারিনির্ভর ছিল। আর হোম ডেলিভারি করা হতো নব্বইয়ের দশকের একটি গাড়ি দিয়ে। পরবর্তীতে বনানীর ৪ নম্বর রোডের ১০৭ নম্বর বাড়িতে আত্মপ্রকাশ পায় পিৎজা গাইয়ের নতুন ঠিকানা।

বাংলাদেশে পিৎজার জনপ্রিয়তাকে কাজে লাগিয়ে আসল ইতালীয় স্বাদের পিৎজার সঙ্গে পরিচয় করানো এর প্রতিষ্ঠাতা নাভিদের অন্যতম লক্ষ্য। ‘পিৎজা গাইয়ের’ নিজস্ব কিছু স্পেশাল মেন্যু রয়েছে। এরমধ্যে মাশরুম লাভারস, বিফ স্টিক পিৎজা, ব্যাক ইয়ার্ড বার-বি-কিউসহ আরও অনেক।

রমজান উপলক্ষে বিশেষ অফার

আসন্ন পবিত্র রমজান মাস উপলক্ষে পিৎজা গাই দিচ্ছে বিশেষ অফার। এখানে পিৎজা গাই রোজাদারের জন্য সাহ্রির বিশেষ ব্যবস্থা রাখবে। এক্ষেত্রে সাহ্রির জন্য দুটি প্যাকেজের ব্যবস্থা থাকবেণ্ড যা জনসাধারণের ক্রয়ক্ষমতার মধ্যেই থাকবে।

পিৎজা গাইয়ে হোম ডেলিভারি দেয়ার জন্য চারজন ডেলিভারি বয় নিযুক্ত আছেন। অর্ডার পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই তারা পিৎজা বাসায় পৌঁছে দেন। পিৎজা ডেলিভারির স্থানগুলো হচ্ছেÑ বনানী, বনানী ডিওএইচএস, বারিধারা, বারিধারা ডিওএইচএস, বসুন্ধরা ও মহাখালী ডিওএইচএস।

লেখা ও ছবি : নাসিফ শুভ