২৩ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

বি. চৌধুরী রাজনীতি ছাড়ছেন?


স্টাফ রিপোর্টার ॥ রাজনীতি ছাড়ছেন বিকল্পধারা প্রেসিডেন্ট ও সাবেক রাষ্ট্রপতি অধ্যাপক বদরুদ্দোজা চৌধুরী? এমনি গুঞ্জন শোনা গেলেও বিষয়টির কোন সত্যতা নেই। তিনি বা তাঁর দলের পক্ষ থেকেও এখন পর্যন্ত এ বিষয়ে কোন কিছুই স্পষ্ট করা হয়নি। তবে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে এ মুহূর্তে বি চৌধুরী রাজনীতি থেকে অবসর নেয়ার কোন সিদ্ধান্ত নেননি। রাজনীতি থেকে অবসর নেয়ার বিষয় গুজব ও অনুমাননির্ভর বলে বিকল্পধারার দলীয় সূত্রে জানা গেছে।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, গত বৃহস্প্রতিবার বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা ও সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৩৪তম মৃত্যুবাষির্কীতে তিনি প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। সেখানে তিনি একটানা ৫৫ মিনিট বক্তৃতা করেছেন। কিন্তু তাঁর বক্তৃতায় একবারও রাজনীতি থেকে অবসর নেয়ার কোন ইঙ্গিত দেননি। নাম প্রকাশ না করার শর্তে দলের এক নেতা বলেন, বিকল্পধারা প্রেসিডেন্ট বি চৌধুরীর রাজনীতি থেকে অবসর নেয়ার যে খবর প্রকাশিত হয়েছে তা একেবারেই গুজব। এ ধরনের কোন সিদ্ধান্ত নেননি। শুধু বিএনপির আলোচনাসভায় তাঁর দেয়া বক্তৃতা ‘আমার বয়স হয়েছে। সব কিছু নির্ভর করছে স্বাস্থ্যের ওপর। বাকি সব কিছু আল্লাহ্র ওপর নির্ভর করছে’Ñ এই বক্তৃতার সূত্র ধরেই তাকে রাজনীতি থেকে অবসর নেয়ার কথাটি সামনে নিয়ে আসা হয়েছে। স্বয়ং বি চৌধুরীও বলেছেন, রাজনীতি থেকে অবসর নেয়ার বিষয়টি অনুমাননির্ভর।

শুক্রবার এ সম্পর্কিত প্রকাশিত খবরে বলা হয়েছে, আগামীকাল রবিবার বিকল্পধারা বাংলাদেশের যৌথসভা ডাকা হয়েছে। সেই সভায় রাজনীতি থেকে অবসর নেয়ার কথা ঘোষণা দেবেন তিনি। কিন্তু বিকল্পধারার দলীয় সূত্রে জানা গেছে, আগামীকাল দলের যে বর্ধিত সভা ডাকা হয়েছে তা মূলত দলের সাংগঠনিক কর্মকা- ও প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে। এ বিষয়টি নিয়েই মূলত সেখানে আলোচনা করা হবে। এর বাইরে বর্ধিত সভায় তাঁর রাজনীতি থেকে অবসর নেয়ার ঘোষণা দেয়া কোন চিন্তাভাবনা নেই বলে দলীয় সূত্রে জানা গেছে। এ বিষয়ে যে খবর প্রকাশিত হয়েছে তা অনুমাননির্ভর ও গুজরনির্ভর বলে দলের এক নেতা জানান। তিনি বলেন, এই মুহূর্তে রাজনীতি থেকে বি চৌধুরীর অবসর নেয়ার কোন চিন্তাভানা নেই। আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণা দেয়ারও কোন সিদ্ধান্ত হয়নি। শুধু একটি বক্তব্যের সূত্র ধরে তাকে রাজনীতি থেকে অবসর নেয়ার কথা বলা হয়েছে, যা অদৌ ঠিক নয়।

রাষ্ট্রপ্রতির পদ থেকে পদত্যাগ করে ২০০৪ সালের মার্চ মাসে গঠন করেন বিকল্প ধারা বাংলাদেশ। সেই থেকে তিনি এখনও দলের প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। বিকল্পধারা বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করলেও বর্ষীয়ান এই নেতার রয়েছে বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক ক্যারিয়ার। তিনি ১৯৭৯ সাল থেকে বিএনপির রাজনীতি সঙ্গে জড়িত ছিলেন। বিকল্পধারা গঠন করার আগ পর্যন্ত তিনি বিএনপির রাজনীতির সঙ্গেই জড়িত ছিলেন। এই দীর্ঘ সময়ে তিনি সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পালনসহ রাষ্ট্রপতির দায়িত্ব পালন করেন। কিন্তু রাষ্ট্রপতি থাকার অবস্থায় সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়ারউর রহমানের মাজারে শ্রদ্ধা জানানো কেন্দ্র করে বিএনপির মধ্যে তার প্রতি অসন্তোষ দানা বাঁধতে থাকে। এক পর্যায়ে বিএনপির পক্ষ থেকে তাঁকে রাষ্ট্রপতি পদ থেকে ইমপিচমেন্ট করার উদ্যোগ নেয়া হলে তিনি রাষ্ট্রপ্রতির পদ থেকে পদত্যাগ করেন। এর দু’বছর পর বিএনপির সাবেক সাংসদ মেজর (অব) মান্নান, তাঁর ছেলে মাহী বি চৌধুরীকে সঙ্গে নিয়ে গঠন করেন নতুন দল বিকল্প ধারা বাংলাদেশ। সেই থেকে তিনি গত ১১ বছর ধরে বিকল্প ধারা সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন। দলের প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন।

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: