১৮ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট পূর্বের ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

আউটসোর্সিং এ্যাওয়ার্ড দেবে বেসিস


স্টাফ রিপোর্টার ॥ দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের সংগঠন বাংলাদেশ এ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার এ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) পঞ্চমবারের মতো ‘বেসিস আউটসোর্সিং এ্যাওয়ার্ড’ দিতে যাচ্ছে। আউটসোর্সিং পেশার সঙ্গে যুক্ত কোম্পানি, একক ফ্রিল্যান্সার, নারী ফ্রিল্যান্সার ও জেলাভিত্তিক ফ্রিল্যান্সার বিভাগ মোট সেরা এক শ’ ব্যক্তি প্রতিষ্ঠানকে কাজের স্বীকৃতি হিসাবে এই এ্যাওয়ার্ড দেয়া হচ্ছে। আবেদনকারীদের মধ্য থেকে বেসিসের বিশেষ জুড়ি বোর্ড এই এক শ’ ফ্রিল্যান্সার নির্বাচন করবেন। বৃহস্পতিবার রাজধানীর কারওয়ান বাজারের বেসিস অডিটোরিয়ামে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে বেসিস সভাপতি শামীম আহসান, কোষাধ্যক্ষ শাহ ইমরাউল কায়িশ, মহাসচিব উত্তম কুমার পাল, নির্বাহী পরিচালক সামি আহমেদ ও ব্যাংক এশিয়ার উপ ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ আরফান আলী উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে বেসিস আউটসোর্সিং এ্যাওয়ার্ড’ সম্পর্কে শামীম আহসান বলেন, বাংলাদেশকে উন্নত দেশ হিসাবে গড়ে তুলতে তথ্য প্রযুক্তিতে এগিয়ে যাওয়ার কোন বিকল্প নেই। এ জন্য তথ্য প্রযুক্তি ক্ষেত্রে দক্ষ জনশক্তি গড়ে তুলতে হবে। দক্ষ জনশক্তি গড়ে তুলতে হলে এই সেক্টরে উৎসাহ দিতে হবে। ফ্রিল্যান্সারদের বড় প্রতিষ্ঠান তৈরি করতে ও এই ক্ষেত্রে তাদের উৎসাহ বাড়াতে বেসিস আউটসোর্সিং এ্যাওয়ার্ড দিতে যাচ্ছে।

বেসিস আউটসোর্সিং এ্যাওয়ার্ড ২০১৫-এর আহ্বায়ক শাহ ইমরাউল কায়িশ বলেন, ২০১১ সাল থেকে বেসিস এই পুরস্কার দিয়ে আসছে। গত বছরের মতো এবারও এক শ’টি পুরস্কার দেয়া হবে।

ব্যাংক এশিয়ার উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ আরফান আলী বলেন, বেসিসের এই উদ্যোগের সঙ্গে যুক্ত হতে পেরে ব্যাংক এশিয়া গর্বিত। এবারের আয়োজনে বেসিসের সঙ্গে রয়েছে আইসিটি বিজনেস প্রমোশন কাউন্সিল (আইবিপিসি), ব্যাংক এশিয়া ও পায়ওনিয়ার। গোল্ড স্পন্সর হিসেবে রয়েছে বিডিজবস।

উল্লেখ্য আগ্রহী ফ্রিল্যান্সার ও এই খাতের সঙ্গে যুক্ত প্রতিষ্ঠানগুলো বেসিস আউটসোর্সিং এ্যাওয়ার্ডের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে (যঃঃঢ়://ড়ঁঃংড়ঁৎপরহমধধিৎফ.নধংরং.ড়ৎম.নফ) গিয়ে নিবন্ধন করতে পারবেন। বৃহস্পতিবার থেকেই নিবন্ধন শুরু হচ্ছে, চলবে ২১ জুন পর্যন্ত। জুনের শেষ সপ্তাহে আনুষ্ঠানিকভাবে ফ্রিল্যান্সারদের হাতে পুরস্কার তুলে দেবে বেসিস।

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: