২৪ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

ফ্যাশনেও পাখি


এতকাল ভেবে এসেছেন পৃথিবীতে বুঝি শুধু মানুষরাই ফ্যাশন সচেতন। শুধু যদি এ কথা জেনে থাকেন তবে আপনি ভুল করছেন। পাখিদের মধ্যেও রয়েছে ফ্যাশন সচেতনতা। বহুকাল ধরেই পাখিদের মধ্যে এই ব্যাপারটা প্রচলিত। অবাক হওয়ার মতো শোনালেও এ কথা সত্য যে, নতুন পোশাকের প্রতি পাখির আকর্ষণ মানুষের চেয়ে অনেকগুণ বেশি। তন্ন তন্ন করে খুঁজেও আপনি এমন কোন পাখি পাবেন না, যারা পুরনো পালক গায়ে দিয়ে বছর পার করে। পুরনো পালক ফেলে বছরে অন্তত একবার এদের নতুন পালক চাই-ই চাই। কোন কোন ক্ষেত্রে অনেক পাখিকে বছরে দু-তিনবার পোশাক বদলাতেও দেয়া যায়।

সঙ্গত কারণে চোখ কপালে তুলে আপনি প্রশ্ন করতেই পারেন- পাখিরা তাদের পোশাক (পালক) বদলের কাজটি কখন করে?

উত্তরটা খুব সোজা, ‘পালক বদলের কাজটি পাখিরা এখানে করে ধাপে ধাপে। এর ফলে পাখির পোশাক বদলের পালাটা প্রায়ই আমাদের দৃষ্টিগোচর হয় না। কিছু পাখির ক্ষেত্রে এর ব্যতিক্রম ঘটে। বর্ষা এলে এ দেশেও কিছু পাখির সাজসজ্জা নাটকীয়ভাবে বদলায়। পালকের আড়ম্বর, বৈচিত্র্য, বর্ণ আর কারুকার্যে এই পাখিদের মনসুন কালেকশনটি অনেক ডিজাইনারেরই ঈর্ষার বস্তু। পূর্বরাগের লগ্ন এলে অনেক পাখিই জমকালো পোশাকে সাজতে চায়।’

পাখিদের এই পোশাক বদলানোর মানুষকে বেশ কৌতূহলী করে তুলেছে। পাখি তার পোশাকের রঙ ও নিত্যনতুন স্টাইলে মানুষকে পেছনে ফেলেছে। “পোশাকের রঙ ও স্টাইলে পাখির সঙ্গে মানুষের কোন তুলনাই চলে না। পাখির পালকে যে ইরিডেন্সের আছে, তার এক শতাংশও মানুষের আবিষ্কার করা কোন ছাপার মাধ্যমে আনা সম্ভব হয়নি। আমাদের ডিজাইনারদের তাবৎ সৃষ্টি পাখির পোশাকের ‘সিজনাল কালেকশন’ ও ‘জেন্ডার স্টেটমেন্টের’ কাছে হার মানতে বাধ্য। এ্যাপারেল ডিজাইনে পাখিরা মানুষের চেয়ে কয়েক কোটি বছর এগিয়ে আছে।”

ফ্যাশনে পুরোদস্তুর আধুনিক পাখির প্রাত্যহিক পোশাকে জেন্ডার স্টেটমেন্ট আছে তার হদিসও আমরা বইয়ে পাই। শুধু তাই নয়, পাখিদের পোশাকের এই জেন্ডার স্টেটমেন্ট পুরুষকে নারীর চেয়ে অনেক বেশি আকর্ষণীয় করে তোলে।