২১ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট পূর্বের ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের নির্মাণ ব্যয় বৃদ্ধি


ঢাকা-চট্টগ্রম মহাড়ক চারলেনে উন্নীতকরণ প্রকল্পের সংশোধিত ক্রয় প্রস্তাব (ভেরিয়েশন অর্ডার) এক হাজার এক শ’ চুরাশি কোটি একাশি লাখ টাকা বৃদ্ধি পেয়েছে। বুধবার দুপুরে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের ক্রয় ও অর্থনীতি শাখার ১৬তম বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এ কথা জানান যুগ্মসচিব মোস্তাফিজুর রহমান। সচিবালয়ের মন্ত্রিপরিষদ সভাকক্ষে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এতে জানানো হয়, ছয়টি কাজের মধ্যে চারটিতে ব্যয় বৃদ্ধি পেয়েছে এবং দুটিতে কমেছে। অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের সভাপতিত্বে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, বৈদেশিক কর্মসংস্থান ও প্রবাসীকল্যাণমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন, গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী মোশাররফ হোসেন, তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জোনায়েদ আহমেদ পলক প্রমুখ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।-অর্থনৈতিক রিপোর্টার

বাজেটে ভর্তুকি অব্যাহত থাকছে

আসন্ন বাজেটে ভর্তুকির পরিমাণ কমছে না। কৃষি, বিদ্যুত-জ্বালানিসহ প্রায় সব খাতে ভর্তুকি অব্যাহত থাকছে। মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে, ২০১৫-১৬ সালের জন্য প্রস্তাবিত বাজেটে ভর্তুকি খাতে ২৬ থেকে ২৮ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ দেয়া হতে পারে। চলতি বাজেটে এ খাতে বরাদ্দের পরিমাণ ২৬ হাজার কোটি টাকা। যদিও বিশ্বব্যাংক ও আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ) ভর্তুকি কমানোর জন্য সরকারকে চাপ দিয়ে আসছে। বিশেষ করে বিদ্যুত ও জ্বালানি খাতে ভর্তুকি শূন্যে নামিয়ে আনার পরামর্শ দিচ্ছে তারা। অর্থ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, গত ১৯ ও ২০ মে প্রধানমন্ত্রীর সভাপতিত্বে তার কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সভায় আসন্ন বাজেট নিয়ে আলোচনা হয়। সে সময় প্রধানমন্ত্রী কৃষিসহ অন্যান্য খাতে ভর্তুকি অব্যাহত রাখার নির্দেশ দেন। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, ভর্তুকি তুলে নিলে গরিব মানুষ বিশেষ করে কৃষকরা ক্ষতিগ্রস্ত হবেন। -অর্থনৈতিক রিপোর্টার