২২ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

অভিবাসী ইসূতে আঞ্চলিক বৈঠক শুক্রবার


অনলাইন ডেস্ক ॥ অভিবাসী সমস্যা তীব্র আকার ধারণ করায় এটিকে প্রধান ইস্যু হিসেবে বিবেচনা করছে থাইল্যান্ড।

সে কারণে আগামী শুক্রবার ব্যাংককে আঞ্চলিক বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। এ বৈঠকে মানবপাচারকে মূল ইস্যু হিসেবে আলোচনায় তুলবে থাইল্যান্ড।

বৈঠকে মায়ানমার, বাংলাদেশ, থাইল্যান্ড, মালয়েশিয়া ও ইন্দোনেশিয়ার প্রতিনিধিরা উপস্থিত থাকবেন।

এদিকে, মঙ্গলবার থাইল্যান্ডের উপপ্রধানমন্ত্রী ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী তানাসাক পাতিপামাপ্রাগর্ন সমুদ্রে ভাসমান রোহিঙ্গাদের ত্রাণ দিতে আন্তর্জাতিক কমিউনিটির প্রতি আহ্বান জানান।

তিনি আশা করেন, শুক্রবারের বৈঠকে রোহিঙ্গা ইস্যু সমাধানে ফলপ্রসূ ও কার্যকরী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

জেনারেল তানাসাক বলেন, বৈঠকে সমুদ্রে ভাসমান রোহিঙ্গাদের সমস্যা আলোচিত হবে। আলোচনায় অভিবাসনের কারণ, উৎস দেশ, রোহিঙ্গাদের পাচারের নেটওয়ার্ক ভেঙে দেওয়ার বিষয়টিরও ওপরও গুরুত্ব দেওয়া হবে।

তিনি বলেন, সমস্যার সমাধান মানে এই নয় যে, পাচারের উৎস দেশের সঙ্গে লড়াইয়ে জড়িয়ে পড়া।

মন্ত্রী আশা প্রকাশ করেন, থাইল্যান্ড, মালয়েশিয়া ও ইন্দোনেশিয়া সমুদ্রে ভাসমান রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে একই পন্থা অবলম্বন করবে।

তানাসাকা বলেন, তবে ভাসমান রোহিঙ্গাদের থাইল্যান্ডে স্থান দেওয়া হবে না। কারণ, এর আগে পার্শ্ববর্তী দেশগুলোর একলাখ শরণার্থীকে থাইল্যান্ডে আশ্রয় দেওয়া হয়েছে।

তিনি উল্লেখ করেন, আমরা মানবিক সহায়তা দিতে সব সময়ই প্রস্তুত আছি। তবে সেটা থাইল্যান্ডে প্রবেশকারীদের জন্য ও থাই আইনানুযায়ী করা হবে।

প্রধানমন্ত্রী প্রায়াউট চান-ও-চা বলেন, যে সব অভিবাসীর গন্তব্যস্থল মালয়েশিয়া ও ইন্দোনেশিয়া, তাদেরও অস্থায়ী ভিত্তিতে থাইল্যান্ডে আশ্রয় দেওয়া হবে। তবে এদের সহায়তা ও আশ্রয়ের জন্য জাতিসংঘের সাহায্য চাওয়া হবে।

তিনি বলেন, শুক্রবারের বৈঠকে এ সব কিছুই আলোচনা হবে। তিনি জানান, ১৭টি দেশ এ সমস্যার কারণে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।

শুক্রবার ব্যাংককে অনুষ্ঠিতব্য আঞ্চলিক বৈঠকে মায়ানমার, বাংলাদেশ, মালয়েশিয়া ও ইন্দোনেশিয়ার কর্মকর্তারা অংশগ্রহণ করবেন।

এ ছাড়া মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, সুইজারল্যান্ড ও জাপান এ বৈঠকে পর্যবেক্ষক পাঠাবে।

এবাদেও জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআর, আন্তর্জাতিক অভিবাসী সংস্থা আইওএম, জাতিসংঘের অফিস অন ড্রাগস অ্যান্ড ক্রাইমের (ইউএনওডিসি) প্রতিনিধিরা ব্যাংকক বৈঠকে উপস্থিত থাকবেন।