১৯ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

দুই বন্ধু মিলে শিশুকে ধর্ষণ


অনলাইন রিপোর্টার ॥ জেলার ঘিওরে এক শিশুকে (১১) দুই বন্ধু মিলে ধর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ধর্ষণের দৃশ্যটি মোবাইল ফোনে ধারণও করা হয়েছে।

মোবাইল ফোনে ধারণ করা ধর্ষণের এ ভিডিও ক্লিপ দুই সপ্তাহ পর অন্য বন্ধুদের মাধ্যমে জানতে পেরে শিশুটির পরিবার ঘিওর থানায় মামলা করেছে।

আসামিরা হলেন- ওই গ্রামের গণি মল্লিকের ছেলে শাহীন মল্লিক (২০) ও দবির মল্লিকের ছেলে রমজান মল্লিক (২০)।

ওই শিশু ও তার স্বজনরা জানায়, ৯ মে বিকেলে শাহিনের বাড়ির পাশ দিয়ে ওই শিশু একই গ্রামে তার নানাবাড়ি যাচ্ছিল। এ সময় শাহীন শিশুটিকে ফুঁসলিয়ে নিজ ঘরে নিয়ে সাউন্ড বক্সে গান বাজানো শুরু করেন। এক পর্যায়ে শাহীন শিশুটির মুখ চেপে ধরে তাকে ধর্ষণ করে। শিশুটির আর্তচিৎকার করলেও উচ্চশব্দে গানের কারণে আশপাশের লোকজন তা টের পায়নি।

শিশুটিকে ধর্ষণ শেষে শাহীন তার অপর বন্ধু রমজানকে মোবাইল ফোনে বাড়ি ডেকে আনে। রমজান এসেও শিশুটিকে ধর্ষণ করে। ধর্ষণের এ ভিডিও ক্লিপ শাহীন নিজ মোবাইল ফোনে ধারণ করে। এরপর তারা ধর্ষণের ঘটনা কাউকে জানালে মেরে ফেলা হবে বলে শিশুটিকে হুমকি দেয়। শিশুটিও ভয়ে স্বজনদের কাছে না বলে বিষয়টি চেপে যায়।

শিশুটি বাবা জানান, এ ঘটনার দুই সপ্তাহ পর শাহীনের মোবাইল ফোন থেকে গান নিতে গিয়ে তারই বন্ধু একই গ্রামের রায়হান ও হৃদয় ধর্ষণের ভিড়িও ক্লিপটি দেখতে পায়। এর পরই বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হয়। তখন এ বিষয়ে জিজ্ঞাসা করলে তার মেয়ে পুরো ঘটনার বর্ণনা দেয়। এ ঘটনায় তিনি বাদী হয়ে রবিবার ঘিওর থানায় শাহীন ও রমজানকে আসামি করে মামলা করেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ঘিওর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মজিবুর রহমান জানান, মানিকগঞ্জ সদর হাসপাতালে সোমবার শিশুটির ডাক্তারি পরীক্ষা করা হয়েছে। মামলার তদন্ত চলছে। আর আসামিদের গ্রেফতার ও ভিডিও ক্লিপটি উদ্ধারের চেষ্টা চালানো হচ্ছে বলেও জানান তিনি।