১৮ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

স্থল সীমান্ত চুক্তি বাস্তবায়নে প্রটোকলে অনুসমর্থন দিয়েছে মন্ত্রিসভা


অনলাইন ডেস্ক ॥ বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে বহু প্রতীক্ষিত স্থল সীমান্ত চুক্তি বাস্তবায়নের প্রটোকল প্রস্তাব অনুসমর্থন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে সোমবার সচিবালয়ে মন্ত্রিসভার নিয়মিত সাপ্তাহিক বৈঠকে ‘দ্য প্রটোকল টু দ্য এগ্রিমেন্ট বিটুইন দ্য টু কান্ট্রিজ এ্যান্ড রিলেটেড ম্যাটারস’ শীর্ষক এ প্রোটোকল প্রস্তাবে অনুসমর্থন দেয়া হয়।

বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব এম মোশাররাফ হোসাইন ভূইঞা সাংবাদিকদের ব্রিফকালে একথা বলেন।

তিনি বলেন, দু’দেশের মধ্যে ছিটমহল বিনিময় ও অমীমাংসিত সীমানা নির্ধারণের লক্ষ্যে ১৯৭৪ সালে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর মধ্যে ঐতিহাসিক ও যুগান্তকারী এ স্থল সীমান্ত চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, এ জন্য সংবিধান সংশোধনের প্রয়োজন হওয়ায় বাংলাদেশ সরকার ১৯৭৪ সালের ২৮ নভেম্বর জাতীয় সংসদে সংবিধানের তৃতীয় সংশোধনীর মাধ্যমে ঐতিহাসিক এ মুজিব-ইন্দিরা চুক্তিতে অনুসমর্থন দেয়। কিন্তু ১৯৭৫ সালে বঙ্গবন্ধুর নৃশংস হত্যাকাণ্ডের পর এ ব্যাপারে কোন কার্যকর উদ্যোগ নেয়া হয়নি।

চুক্তিটি বাস্তবায়নে ভারতের সংবিধান সংশোধনেরও প্রয়োজন ছিল। কিন্তু সংবিধান সংশোধন একটি জটিল প্রক্রিয়া। এ জন্য পার্লামেন্টের দুই-তৃতীয়াংশের সমর্থন প্রয়োজন হয়। সম্প্রতি ভারতের পার্লামেন্টে সংবিধান সংশোধনীর মাধ্যমে স্থল সীমান্ত চুক্তিতে অনুসমর্থন দেয়া হয়।

চুক্তিটি বাস্তবায়নে ২০১১ সালে ঢাকায় দু’দেশের প্রধানমন্ত্রীদ্বয়ের উপস্থিতিতে একটি প্রটোকল স্বাক্ষরিত হয়।

ওই সময় বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের উপস্থিতিতে দু’দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীদ্বয় এ প্রটোকলে স্বাক্ষর করেন।

ভূইঞা বলেন, ভারত সরকার কর্তৃক স্থল সীমান্ত চুক্তির অনুমোদন না হওয়ায় প্রটোকল কার্যকরের কোন সুযোগ ছিল না। এজন্য এতদিন প্রোটোকল উত্থাপিত হয়নি। সূত্র- বাসস।