১৮ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৪ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ দ্রুত মাথা তুলে দাঁড়াবে ॥ নাসিম


স্টফ রিপোর্টার ॥ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম সীমান্ত চুক্তি বিলকে শেখ হাসিনার ঐতিহাসিক বিজয় উল্লেখ করে বলেন, প্রধানমন্ত্রী তাঁর অসাধারণ দূরদর্শী রাজনীতির মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত একটি কাজকে সাফল্যের সঙ্গে সমাপ্ত করছেন। এর মাধ্যমে বাংলাদেশের ইতিহাসে ৪৪ বছরের একটি স্থায়ী সমস্যা সমাধান হতে চলেছে। আগামী ’১৯ সালের জাতীয় নির্বাচনে দেশের মানুষ নিশ্চয়ই এর মূল্যায়ন করবে। শনিবার তিনি ফ্রাঙ্কফুর্টে জার্মান আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আয়োজিত এক সমাবেশে বক্তৃতা করছিলেন। জার্মান আওয়ামী লীগের সভাপতি শওকত চৌধুরী সাবুর সভাপতিত্বে সমাবেশে আরও বক্তৃতা করেন শেখ বাদল, গোলাম কিবরিয়া, আনিসুর রহমান প্রমুখ। স্বাস্থ্যমন্ত্রী বিশ্ব স্বাস্থ্য সম্মেলনে যোগদানের উদ্দেশ্যে গত কয়েকদিন ধরে সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় অবস্থান করছিলেন। শনিবার জার্মান আওয়ামী লীগের এই অনুষ্ঠানে যোগদানের উদ্দেশ্যে তিনি ফ্রাঙ্কফুট যান। আজ তাঁর দেশে ফেরার কথা। জার্মান আওয়ামী লীগের সমাবেশে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ সরকার স্বাস্থ্য খাতে ব্যাপক উন্নিত করেছে। আজ বিশ্ব নেতৃবৃন্দও এই উন্নয়নের প্রশংসা করতে বাধ্য হচ্ছেন। শুধু স্বাস্থ্য খাত নয়, দেশের অগ্রগতির প্রতিটি খাতই আজ উর্ধমুখী। শেখ হাসিনার নেতৃত্বেই বাংলদেশ খুব দ্রুত উন্নত দেশ হিসেবে বিশ্বের দরবারে মাথা তুলে দাঁড়াবে। এজন্য তিনি প্রবাসীদেরও সহযোগিতার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, দেশের এই অগ্রগতিতে শুধু সন্তুষ্ট হতে পারছে না খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে বিএনপি-জামায়াত জোট। তারা দেশের উন্নয়ন চায়না, বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে উন্নয়ন ব্যাহত করতে চায়। ষড়যন্ত্র করে ক্ষমতায় যাওয়াই তাদের লক্ষ্য। এজন্য কলংকজনক ইতিহাসের জন্ম দিয়ে তারা দেশে একশ’ দিনের বেশী টানা অবরোধ হরতার করেছে। প্রেট্রোলবোমায় পুুড়িয়ে মেরেছে অসংখ্য নিরীহ মানুষ। শত শত লোক সারাজীবনের জন্য পঙ্গু হয়ে গেছে। এসব অপকর্মের দায়িত্ব খালেদা জিয়াকেই নিতে হবে। আগামী জাতীয় নির্বাচনে নিশ্চয়ই দেশের মানুষ এর যোগ্য জবাব দেবে। দেশে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির চেষ্টা না করে আগামী নির্বাচনের প্রস্তুতি নেয়ার জন্য তিনি বিএনপির প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, জনপ্রিয়তার মাপকাঠি একমাত্র নির্বাচন। জ্বালাও-পোড়াও করে জনপ্রিয়তা যাচাই করতে পারবেন না। নির্বাচনে আসুন, দেখুন দেশের মানুষ কাকে গ্রহণ করে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: