২৪ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

গরমের চেয়ে ঠাণ্ডা আবহাওয়ায় বেশি প্রাণহানি ঘটে


বিশ্বে গরমের চেয়ে ঠাণ্ডা আবহাওয়ার কারণে বেশি লোকের প্রাণহানি ঘটে। বৃহস্পতিবার গণস্বাস্থ্য নীতির একটি গুরুত্বপূর্ণ এই ইস্যু নিয়ে চালানো এক জরিপে একথা বলা হয়। খবর এএফপির।

গবেষকরা চিলি থেকে গ্রীষ্মম-লীয় অঞ্চলের আশপাশের ১৩টি দেশে ১৯৮৫ থেকে ২০১২ সালের মধ্যে মারা যাওয়া সাত কোটি ৪০ লাখ লোকের ওপর গবেষণা চালান। বিশ্বের এই ১৩টি দেশের জলবায়ুর তারতম্য অনেক বেশি। গবেষকরা তাপমাত্রার সঙ্গে এসব লোকের মৃত্যুর কারণ মিলিয়ে দেখার চেষ্টা করেন। এক্ষেত্রে তারা মৃত্যুর কারণের সঙ্গে যুক্ত আর্দ্রতা ও বায়ু দূষণের মতো বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বিষয় খতিয়ে দেখেন। গবেষণায় দেখা গেছে, তাপমাত্রাজনিত পরিবর্তনের কারণে মোট মৃত্যুর হার দাঁড়ায় ৭ দশমিক ৭ শতাংশ। এক্ষেত্রে ৭ দশমিক ৩ শতাংশ লোক মারা যায় ঠা-াজনিত আবহাওয়ার কারণে। মাত্র শূন্য দশমিক ৪ শতাংশ লোকের মৃত্যু হয় গরমের কারণে। লন্ডন স্কুল অব হাইজিন এ্যান্ড ট্রপিক্যাল মেডিসিনের প্রধান লেখক এন্তোনিও বলেন, ‘আগে প্রায়ই মনে করা হতো চরম আবহাওয়ার কারণেই অধিকাংশ লোকের মৃত্যু ঘটে। ফলে আগের গবেষণায় অতিরিক্ত গরম আবহাওয়ার কার্যকারিতার ওপর বেশি গুরুত্ব দেয়া হতো। কিন্তু আবহাওয়াজনিত মৃত্যুর ব্যাপক তথ্য উপাত্ত বিশ্লেষণ করে আমরা দেখতে পেয়েছি, এসব মৃত্যুর অধিকাংশ ঘটে মাঝারি মানের গরম ও শীতের দিনে। তবে অধিকাংশ লোকের মৃত্যু ঘটে মাঝারি মানের শীতে। দ্য ল্যানসেট জরিপটি প্রকাশ করে।

পরমাণু বোমা কেনার খবর নাকচ সৌদি আরবের

সৌদি আরব পাকিস্তান থেকে পারমাণবিক বোমা কিনতে চায় বলে খবর প্রকাশের কয়েক দিন পর রাজতন্ত্রের একজন প্রতিরক্ষা কর্মকর্তা মঙ্গলবার খবরটিকে নিছক ‘অনুমান’ বলে উড়িয়ে দিয়েছেন। লন্ডনের সানডে টাইমসে প্রকাশিত এক রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে, সৌদি আরব পাকিস্তান থেকে ‘যে কোন সময়’ পারমাণবিক বোমা ক্রয়ের ‘কৌশলগত সিদ্ধান্ত নিয়েছে’। খবর এক্সপ্রেস ট্রিটিউনের।